১০০ দিনের কাজে ২০০ কোটির দুর্নীতি! দিল্লী টিমের তদন্তে সায় দিচ্ছে না নবান্ন

নিজস্ব প্রতিবেদন: কেন্দ্রীয় সরকারের প্রসিদ্ধ প্রকল্প ১০০ দিনের কাজ। যার অফিসিয়াল নাম ‛মনরেগা’। এবার এই বহুলচর্চিত প্রকল্পকে নিয়েই দুর্নীতির অভিযোগ উঠলো আমাদের রাজ্যের বিরুদ্ধে। কেন্দ্রসরকার তদন্তের স্বার্থে বাংলায় কেন্দ্রীয় টিম পাঠাতে চাইলেও, তা সরাসরি নাকচ করে দিয়েছে নবান্ন। এই ঘটনায় এক দুই কোটির ব্যাপার নয় মোট ২০০ কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে রাজ্যের বিরুদ্ধে। সেই নিয়েই উপনির্বাচনের আগেই জোর জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে বঙ্গীয় রাজনৈতিক মহলে।

বিস্তারিত বলতে গেলে বিষয়টা হল, সম্প্রতি কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন দফতর কিউ-১১০১৮/০১/২০২০/-এন নম্বর নির্দেশিকা থেকে জানা গিয়েছে, ১০০ দিনের কাজের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি কেনার যে টেন্ডার ডাকা হয় তাতেই দুর্নীতি হয়েছে বলে আঁচ করা হয়েছে। সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এক নির্দেশিকা জারি করে তো অন্তত এমনটাই জানাচ্ছেন। আসল ঘটনাতো তদন্তের পরেই জানা যাবে।

তবে সারা বাংলার বিরুদ্ধে অভিযোগ নেই আছে শুধু ৫ জেলা বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, আলিপুরদুয়ার, উত্তর দিনাজপুর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই বাঁকুড়া জেলা প্রশাসনের তরফে তাদের জেলার সমস্ত পঞ্চায়েতকে এই নোটিশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আপাতত কেন্দ্রীয় দল না আসতে পারলেও এই বিষয়ে অডিটের সমস্ত রিপোর্ট ১৬ ই অক্টোবরের মধ্যেই জমা দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে কেন্দ্র সরকার।

কেন্দ্রীয় সরকারের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নবান্নের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আগেও নাকি অনেকবার এরকম অনেক অভিযোগ করা হয়েছিল রাজ্যের বিরুদ্ধে। তবে তিনি এসব অভিযোগের কোন ভিত্তি নেই বলেই একপ্রকার উড়িয়ে দিয়েছেন অভিযোগ। তবে পুজো এবং উপনির্বাচনের মুখে রাজ্যের উপর এমন অভিযোগ যে বিশেষ দৃষ্টান্তমূলক তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

আরও পড়ুন

Back to top button