Bangladesh: ‘এত বড় ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী চুপ! খুব চিন্তার বিষয়’, তোপ Sukanta-র

জস্ব প্রতিবেদন: বাংলাদেশ ইস্য়ু নিয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকায় ক্ষোভ উগরে দিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি, বাংলাদেশে দুর্গাপুজোকে ঘিরে হিংসা ও হিন্দুদের উপর আক্রমণের ঘটনায় এপার বাংলায় গর্জে উঠেছে বিজেপি। পথে নেমে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ দেখিয়েছেন বিজেপির নেতা-কর্মীরা। সংঘ পরিবারের সদস্য বিশ্ব হিন্দু পরিষদও বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দুদের সুরক্ষা ও বিচারের দাবিতে রাজপথে নেমে প্রতিবাদ জানিয়েছে। বিজেপির কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দিয়েছে কলকাতায়। এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করলেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

বুধবার বালুরঘাট থেকে কলকাতায় ফেরেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। শিয়ালদহ স্টেশনে সংবাদমাধ্যমকে  সুকান্ত মজুমদার বলেন, “এত বড় ঘটনায় তৃণমূল এবং মুখ্যমন্ত্রীর তরফে কোনও ধরনের বার্তা দেওয়া হয়নি। যে ধরণের বার্তা দেওয়া উচিত ছিল, চিন্তার বিষয় কেন সেই ধরনের বার্তা এল না।” শাসকদলকে একহাত নিয়ে তাঁর দাবি, “বাংলাদেশের ঘটনায় যে ধরণের উত্তরগুলো পাওয়া যাচ্ছে, তা পশ্চিমবঙ্গের ভবিষ্যতের জন্য অত্যন্ত চিন্তার বিষয়।” এই ইস্য়ুতে রাজ্য সরকারের ভূমিকায় বিজেপি সন্তুষ্ট নয় বলেও জানান তিনি।

তৃণমূল মুখপাত্র, রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর হামলার প্রতিবাদ করেছেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখনও এই বিষয়ে কোনও প্রতিবাদ জানাননি। সেই নিয়েই তোপ দেগেছেন সুকান্ত। এদিকে, দুর্গাপুজোকে ঘিরে বাংলাদেশে হিংসা-তাণ্ডবের ঘটনায় সতর্ক এপার বাংলা। উৎসবের মরশুমে পড়শি দেশের অশান্তির আঁচ লাগতে পারে পশ্চিমবঙ্গেও। জাগোবাংলার সম্পাদকীয়তে BJP-কে তীব্র কটাক্ষ করে লেখা হয়েছে বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে BJP।

তৃণমূলের অভিযোগের পাল্টা জবাব দিয়েছেন সুকান্ত মজুমদার। তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কী কথা বলেছে না বলেছে আপনারা ভবিষ্যতে ঠিক জানতে পারবেন। কিন্তু CAA নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলতে পারেন যে আমি UN-এ  যাব। কিন্তু পাশের বাংলাদেশের এত বড় ঘটনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee) কিছু বলছেন না। এটা খুব চিন্তার বিষয় বলে আমার মনে হয়।”

আরও পড়ুন

Back to top button