বাংলাদেশ: পূজা মণ্ডপে হামলার ঘটনায় ভারতজুড়ে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন: সম্প্রতি বাংলাদেশের কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন পাওয়া যায়। এবং সেটিকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি মন্দিরে হামলা চালায় হামলাকারীরা। এরপর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে, পুলিশের সাথে হামলাকারীদের সংঘর্ষ হয়। এবং এইঘটনাকে কেন্দ্র করে ভারতের সামাজিক মাধ্যমে এক ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের হিন্দু সম্প্রদায়কে রক্ষার দাবি জানিয়ে সোশাল মিডিয়ায় নানান ধরনের পোস্ট এবং কমেন্ট করতে দেখা যাচ্ছে। কলকাতা থেকে বিবিসি বাংলার সংবাদদাতা অমিতাভ ভট্টশালী জানান, বাংলাদেশের এই ঘটনাটি নিয়ে ভারতের সামাজিক মাধ্যমে শুধুই যে বাংলা ভাষাভাষীরা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তা একদমই নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনও অনেক পোস্ট দেখা যাচ্ছে, যেখানে হিন্দি এবং ইংরেজি দুই ভাষার পোস্টও ভাইরাল হচ্ছে।

এরপর তিনি আরও বলছেন, যে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশিরভাগ নেটিজেনদের পোস্ট ও টুইট দেখে বোঝাই যাচ্ছে তারা হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলোর সঙ্গে একত্র হয়ে পরিকল্পনা মাফিক পোস্ট শেয়ার করছেন সমগ্ৰ সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় যেসকল পোস্ট গুলির ছবি বা ভিডিও দেখা যাচ্ছে তাতে লেখা হচ্ছে, “দেখুন কীভাবে পূজা প্যান্ডেলে পাথর ছোঁড়া হচ্ছে।”, “অষ্টমীর দিনেই বিসর্জন হয়ে গেল বাংলাদেশের দুর্গা পূজার”, ইত্যাদি মন্তব্যও করেছেন অনেকেই।

বিবিসি সংবাদ মাধ্যম সূত্রের খবর, কিছু পোস্টে মানুষ শুধুমাত্র কুমিল্লা বা হাজীগঞ্জের হামলার ঘটনাগুলোরই নিন্দা করছেন, আবার ঠিক তেমনই অনেক পোস্টে দেখা যাচ্ছে, যেখানে সরাসরি মুসলমানদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেওয়া হচ্ছে। এবং সেই সকল পোস্ট গুলি বেশিরভাগই হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায় লেখা। এছাড়াও ‘বাংলাদেশি হিন্দুস ইন ডেঞ্জার’, ‘বাংলাদেশি হিন্দুস আর হেল্পলেস’ কিংবা ‘সেভ বাংলাদেশি হিন্দু’ – এধরনের বেশ কয়েকটি হ্যাশট্যাগ ও দেখা যায় পোস্ট গুলির ক্রেপশানে।এছাড়াও অনেক পোস্ট গুলি আলোকপাত করলে দেখা গেছে, যেখানে কুমিল্লা আর হাজীগঞ্জের ঘটনার ছবি দিয়ে কোলাজ, পোস্টার, ফ্লায়ার ইত্যাদি ও বানিয়েছেন অনেকে।

আরও পড়ুন

Back to top button