পুজো শেষ হতেই বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে ‘ঘূর্ণিঝড়’ কোম্পাসু! জেনেনিন কতটা পড়বে প্রভাব

নিজস্ব প্রতিবেদন: ফের আঘাত পেলেন ঐন্দ্রিলা! হারিয়ে ফেললেন আরো এক কাছের মানুষকেকার্যত বৃষ্টির চোখরাঙানি সাথে নিয়েই পুজোর দিনগুলো কেটেছে বাঙালির। গোটা দেশের অধিকাংশ অংশ থেকেই বিদায় নিয়েছে বর্ষা। এই পরিস্থিতিতে যখন একটু নিশ্চিন্তে থাকার কথা ভাবছে দেশবাসী, তাতেও জো নেই। এরই মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ও  আছড়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। দক্ষিণ চিন সাগরে ট্রপিক্যাল ঘূর্ণিঝড় কোম্পাসু আঘাত হানার পরে তার প্রভাব বঙ্গোপসাগরেও এসে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়াবিদরা।

দক্ষিণ চিন সাগরে ইতিমধ্যেই আঘাত হেনেছে ট্রপিক্যাল সাইক্লোন কোম্পাসু। যাকে ক্যাটেগরি-১ হ্যারিকেনের সঙ্গেই তুলনা করা হচ্ছে। হংকং-এর দক্ষিণ-পূর্বে এবং ম্যানিলার উত্তর-উত্তর-পশ্চিমে তা অবস্থান করছে। ঘন্টায় ২০ কিমি বেগে পশ্চিম দিকে এগিয়ে চলেছে সেটি। এই ঘূর্ণিঝড়ে ঝোড়ো হাওয়ার বেগ ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৯০ কিমি হতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন আবহবিদরা। কোম্পাসু চিনের হাইনান প্রদেশের দিকে এগিয়ে চলেছে।

জানিয়ে রাখি ইতিমধ্যেই কোম্পাসু-কে ক্যাটাগরি-১ হ্যারিকেন হিসেবে মান্যতা গিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। যদিও এর মূল তাণ্ডবের আশঙ্কা রয়েছে হংকংয়েই। ইতিমধ্যেই সেখানে সতর্কতা হিসেবে স্কুল-কলেজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমনকি উপকূলবর্তী এলাকাগুলি থেকে মানুষজনকে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়বে ভারতেও। ভারতে মূলত এর প্রভাবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড়-বৃষ্টি এবং নিম্নচাপের আশঙ্কা রয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ১৫ অক্টোবর সকালে এই ঘূর্ণিঝড় উত্তর ভিয়েতনামে আছড়ে পড়বে। তবে ভিয়েতনামে পরিবেশে এই ঘূর্ণিঝড় খুব একটা বাড়তে পারবে না। ফলে ভিয়েতনামে দুর্বল হয়ে এটি উত্তর লাওসের উপরে নিম্নচাপে পরিণত হবে।
আবহাওয়াবিদদের মতে শনিবার দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩২ ডিগ্রির আশেপাশে। একইসঙ্গে দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ থাকবে ৭০ শতাংশ। একইসঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে রবিবারও।

আরও পড়ুন

Back to top button