জীবন সংগ্রামে বেঁচে থাকতে করছেন রাজমিস্ত্রির কাজ! আপনার চোখেও জল আনবে এই মায়ের জীবনী!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-মা হচ্ছে পৃথিবীর সবথেকে বড় যোদ্ধা। এর থেকে বড় যোদ্ধা পৃথিবীতে আর কেউ নেই। সন্তানকে আগলে রাখা এবং তাদেরকে নিরাপদে সুস্থ-স্বাভাবিকভাবে বড় করে তোলে হচ্ছে তাদের কর্তব্য যদিও এমনটা লিখিতভাবে কোথাও বলা নেই এই সমস্ত দায়িত্ব তাদেরকে গ্রহণ করতে হবে কিন্তু তবুও বহুযুগ ধরে বছরের পর বছর ধরে মায়েরা কিন্তু এমনটা কাজ নিশ্চুপে করে আসছেন ।সম্প্রতি এমন একটি ভিডিও সম্পর্কে আজকে আপনাদেরকে বলতে চলেছি যেটি সম্পর্কে জানলে আপনি রীতিমত অবাক হবেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা প্রতিনিয়ত এমন কিছু জানো ঘটনার সাক্ষী রাখতে পারি যে সমস্ত ঘটনা হয়তো আমাদের পক্ষে জানা সম্ভব ছিল না যদি আমাদের সামনে তুলে ধরত। হাসি-কান্না অভিমান সামাজিক রাজনৈতিক সমস্ত খবর পাওয়া যায় এই সামাজিক মাধ্যম থেকে।তাই প্রতিনিয়ত সামাজিক মাধ্যমের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে আমাদের এই জীবনে ।সেখানে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সম্প্রতি যেটা দেখলে আপনার চোখে জল চলে আসবে ।এবং ভাববেন যে মায়েরা কতটা শক্তিশালী হয় কতটা পরিশ্রম করে নিজেদের সন্তানকে হাসিখুশি রাখে।

সম্প্রতি যে ভিডিওটি প্রকাশিত যে সেখানে দেখা দিচ্ছে যে একটি বাড়ি নির্মাণ কাজ চলছে। মূলত প্লাস্টারের কাজ চলছে। যেহেতু বাড়িটি অনেক বড় অর্থাৎ বহুতল তাই প্লাস্টার করার জন্য বাড়িটি চারপাশে বাঁশ দিয়ে বেড়া দেওয়া হয়েছে এবং পাশের একটি সিঁড়ি করে দেওয়া হয়েছে।

যাতে কর্মীরা নিচে থেকে ঢালাইয়ের মালপত্র বা প্লাস্টারের মালপত্র উপরে নিয়ে যেতে পারে ।সেখানে দেখা যাচ্ছে যে মাথায় করে প্লাস্টারের মালপত্র সিঁড়ি বেয়ে উপরে নিয়ে যাচ্ছে এক মহিলা কর্মী ।তিনি করুর মা। শুধুমাত্র সন্তানের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য এত কঠিন পরিশ্রম করে যাচ্ছে সারাটা দিন ধরে ।এই ভিডিওটি নেট মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ব্যাপক পরিমাণে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button