আড়াই বছরের শিশুকে বাড়িতে রেখে কঠোর পরিশ্রম করে মা হলেন IAS

কলকাতা হান্ট ডেস্কঃ প্রত্যেক মানুষের জীবনেই একটি স্বপ্ন থাকে যে সে এমন কিছু করবে যাতে তাকে আলাদা করে মানুষ চেনে। কাজটা কঠিন হলেও অনেক মানুষই সেটা করে দেখায়। আর মেয়েদের ক্ষেত্রেও বিয়ের আগে তারা অনেক স্বপ্ন দেখে কিন্তু বিয়ের পর খুব কম মেয়েই তার পারিবারিক বা মানসিক চাপ সামলে কঠোর পরিশ্রম করে সেই স্বপ্নকে সফল করতে পারে। আজ সেই সফল নারীদের মধ্যেই একজন কে নিয়ে কথা বলা হবে।

আরও খবরঃ- Koel Mallick: মায়ের হাত ধরে ব্যাডমিন্টন শিখতে চায় ছোট্ট কবীর, অন্তরঙ্গ ভিডিও শেয়ার কোয়েলের

ইনি হলেন পাটনার বাসিন্দা। তার নাম অনুপমা সিংহ। তিনি তার মাত্র আড়াই বছরের মেয়ে ও পরিবারকে ছেড়ে দূরে চলে যান তার স্বপ্ন সফল করার উদ্দেশ্য নিয়ে। আর তিনি ইউপিএসসি র জন্য কঠোর পরিশ্রম করে ৯০ তম র্যাংক অর্জন করেন।

অনুপমা তার প্রাথমিক পড়াশোনা পাটনাতেই করেন। এর পর ছোট থেকেই পড়াশোনায় ভালো অনুপমা স্নাতক শেষ করে এমবিবিএস ও এমএস এর প্রবেশিকা পরীক্ষায় সাফল্য অর্জন করেন। মূলত তিনি ২০১৪ সালে বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে মাস্টার অফ সার্জারি ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।

এর পর তিনি তার কর্মক্ষেত্র অর্থাৎ একটি হাসপাতালে এসআরসিপি করা শুরু করেন। এবং সেই সময় ই তার বিবাহ ঠিক হয়। এর পর অনুপমার একটি কন্যা সন্তান হয়। তখনই তিনি যখন দেখলেন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা ব্যবস্থায় প্রচুর ত্রুটি কিন্তু সেগুলো সংশোধন হচ্ছেনা। সিস্টেমের প্রচুর সমস্যা থাকার দরুন তিনি নিজেও চিকিৎসা করতে পারছেন না। বা এক চিকিৎসা করে সবকিছু সামাল দেওয়া সম্ভব না। তখন ই তিনি অনুভব করেন স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পরিবর্তনের দরকার। আর সেখান থেকেই তিনি সিদ্ধান্ত নেন সিভিল সার্ভিস যাওয়ার।

কিন্তু সেক্ষেত্রে তার প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় তার ছোট্ট শিশু। তিনি বুঝতে পারেন শিশুকে সামলে পড়াশোনা করা সত্যি চাপের। তখন তিনি এক বছর দিল্লিতে যান। এবং ইউপিএসসি র জন্য কোচিং এ ভর্তি হন। তিনি বলেন ওই সময় টা আমার মনের ওপর অসম্ভব ঝড় বয়ে গেছে। মাঝে মাঝেই ভাবতাম সব ছেড়ে দিয়ে মেয়ে ও পরিবারের কাছে চলে যায়। কিন্তু সেই সময় তার স্বামী তাকে উৎসাহ জুগিয়েছিল। আর অনুপমা ও ঠিক করেন তিনি মেয়ের কাছে নিশ্চয় যাবেন কিন্তু ইউপিএসসি পাস করেই।

আর তখন তিনি বুঝতে পারেন কোচিং সেন্টার হয়তো শুধু পথ টাই দেখাবে। কিন্তু সেই পথে তাকে নিজেই হাটতে হবে। আর সেখান থেকেই শুরু হয় তার কঠোর পরিশ্রম। আর তার পরে ই ২০১৯ সালে তিনি তার কঠোর পরিশ্রমের মূল্য পান। প্রথমবারের জন্য ইউপিএসসি পরীক্ষায় বসেই ৯০ তম স্থান অধিকার করেন অনুপমা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button