নুসরত জাহানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ‘শ্রীময়ী’-এর অনিন্দ্য দা

নুসরত জাহানকে নিয়ে দর্শকদের মধ্যে দল বিভাজন হয়েছিল। একটি দল সর্বদাই নুসরতের কুৎসা গাইতে প্রস্তুত আরেকটি দল সর্বদাই নুসরতের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। সেলিব্রেটিদের মধ্যে অবশ্য এমন মতভেদ খুব একটা প্রকট হয়নি। সেলিব্রেটিদের মধ্য কেউ হয়তো তাঁর প্রশংসা করেছে, নাহলে এড়িয়ে গেছেন বা এবিষয়ে কথা বলেন নি। নুসরতের মা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকে সন্তান হওয়ার পর সর্বদাই বিতর্কিত চরিত্র নুসরত জাহান। সন্তানের জন্মের আগে থেকেই অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত অভিনেত্রী নুসরাতের সাথে দীর্ঘদিন একই ফ্ল্যাটে থাকতেন। আবার নুসরতের মাতৃত্বকালীন সময়ে ও নুসরতের সন্তান হওয়ার সময় থেকে শুরু করে নুসরতের মাতৃত্বকালীন সময় পরবর্তী পর্বেও যশ দাশগুপ্ত ছিলেন নুসরতের ছায়াসঙ্গী। এখনও যশ সবসময় নুসরতের পাশে রয়েছেন।

আবার নুসরতের সন্তানের পিতার নাম প্রকাশ্যে আসার পর থেকে আরোও বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছিল। কারণ নুসরতের সন্তান ঈশানের জন্মের সার্টিফিকেটে পিতা হিসাবে উল্লেখ রয়েছে অভিনেতার নাম। আর এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই দর্শকরা যেন সমালোচনার নতুন সুযোগ খুঁজে পায়। তবে নুসরতের ফ্যান ফলোয়ার্স কমেনি একেবারেই। এবারে নুসরতের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন শ্রীময়ী ধারাবাহিকের শ্রীময়ীর অনস্ক্রিন এক্স হাসবেন্ড অনিন্দ্য অর্থাৎ সুদীপ মুখোপাধ্যায়। এখন সকলের চোখে তিনি অপছন্দের। না, না তিনি অপছন্দের নয়, আসলে অনিন্দ্য সকলের অপছন্দের। আসলে তিনি এতোটাই নিঁখুত অভিনয় করেন যে ধারাবাহিকের চরিত্র দ্বারাই তাঁকে চেনেন মানুষ। একটা সময় চাকরি করতে করতে নাটক করতেন সুদীপ।

View this post on Instagram

A post shared by Sudip Mukherjee M (@sdpmkhrj68)

মাত্র ত্রিশ বছর বয়সেই চাকরি ছেড়ে অভিনয় জগতে আসেন। যেহেতু তাঁর গায়ের রঙ তামাটে, তাই সেই সময় ভাবতেন যে তার শরীরের গড়ন ও রঙের জন্য বদমাইশের চরিত্রই শুধু পেতে পারেন। এইভাবেই তাঁর অভিনয় জগতে আসা। সম্প্রতি শ্রীময়ী ধারাবাহিকের পরিচিত ও নিয়মিত মুখ।এই সুদীপ মুখোপাধ্যায় এবারে নুসরতের সাথে একটি ছবি পোস্ট করেছেন স্যোশাল মিডিয়ায়। আবার ছবিটির ক্যাপশনে নুসরতের প্রসঙ্গে প্রচুর প্রশংসা করেছেন। মধুর শব্দের ছড়াছড়ি ক্যাপশনে। তিনি লিখেছেন নুসরাতকে তিনি ভালো মা, দারুন সাংসদ ও দুর্দান্ত অভিনেত্রী। এইভাবেই বিভিন্ন বিশেষন দ্বারা নুসরতের প্রশংসার বন্যা বইয়ে দিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button