টাকা ফিক্স ডিপোজিট করা আছে? তাহলে আপনার জন্য রয়েছে দারুণ দুঃসংবাদ! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-যদি আপনার কাছে মোটা অঙ্কের টাকা থেকে থাকে তাহলে সে টাকা দিয়ে আপনি কি করতে পারেন? অনেকেই এই টাকা উপযুক্তভাবে কাজে লাগায়। কেউ টাকা বাজারে সুদ খাটায়। আবার কেউ কেউ বুদ্ধিমানের মতন কাজ করে ব্যাঙ্কে ফিক্স ডিপোজিট করে দেয়। এটা ছিল একটা ধারণা যে ব্যাংকের ফিক্স ডিপোজিট করলেই হয়ত মোটা অংকের টাকা পাওয়া যায়।

পূর্বের এমন অনেক ঘটনা রয়েছে যেখানে দেখা গেছে যে ফিক্স ডিপোজিট থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে সংসার চলছে তাদের। কিন্তু বর্তমানে ফিক্স ডিপোজিট করা মানে চরম ভুল। কারণ এতে সুদের পরিমাণ প্রতিনিয়ত কমে আসছে। যার ফলে আপনার মোটের উপর ক্ষতি হচ্ছে কিভাবে তার একটা উদাহরণ স্বরূপ আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো।

চলতি অর্থবর্ষে খুচরো মুদ্রাস্ফীতি ৫.৩ শতাংশ থাকবে। অন্যদিকে এক বছরের ফিক্সডের ওপর স্টেট ব্যাঙ্ক সুদ দেয় পাঁচ শতাংশ। অর্থাৎ বাস্তবিকে আপনার সুদের হার হবে -০.৩ শতাংশ। এবার ধরুন আপনি দুই বা তিন বছরের জন্য টাকা রেখেছেন। তাতেও আপনার সুদ আসবে ৫.১ শতাংশ। অর্থাৎ যতটাকা আপনার বেশি খরচ হচ্ছে জিনিসপত্র কেনাকাটায়, তার থেকে কম টাকা আপনি সুদ পাচ্ছেন।

অন্যদিকে ক্ষুদ্র পুঁজির ওপর যে সব স্কিমগুলি আছে, তাতে ৫.৫ শতাংশ সুদ দিচ্ছে সরকার যেটা অন্তত মুদ্রাস্ফীতির হারের থেকে বেশি।সে অর্থে হয়তো কাটাকুটি করে কিছু টাকা আপনার ঘরে আছে কিন্তু মোটের উপর ক্ষতি হচ্ছে আপনার। সরকারি বেসরকারি উভয় ব্যাংকের ক্ষেত্রে একই নিয়ম দেখা যাচ্ছে। তাই সবথেকে ভালো হবে বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের মাধ্যমে টাকা বিনিয়োগ করা।

কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ইতিমধ্যে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প জারি করা হয়েছে যার মাধ্যমে আপনি বিনিয়োগ করলে অবসর নেওয়ার পর মোটা অংকের টাকা রিটার্ন হিসেবে ফেরত পেতে পারেন। কিষান বিকাশ পত্র তাদের মধ্যে অন্যতম একটি জনপ্রিয় প্রকল্প বলতে পারেন।বর্তমান বিশ্বজনীন আর্থিক পরিস্থিতিতে রিয়েল রিটার্ন অন ইনভেস্টমেন্ট বেশ কিছুদিন নেতিবাচক থাকবে বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button