Jio-র স্পিড কম, অভিযোগ গ্রাহকদের! TRAI-এর তথ্য বলছে অন্য কথা

ভারতের অন্যতম বৃহত্তম নেটওয়ার্ক হলো জিও। ভারতের প্রথম টেলিকম সংস্থা হিসেবে বাজারে প্রথম 4G নিয়ে আসে মুকেশ আম্বানির এই টেলিকম সংস্থা। বাজারে যখন প্রথম জিও এলো তখন দলে দলে নেটওয়ার্ক বদলের ট্রেন্ড দেখা দিলো। সকলেই জিও-এর সুবিধা পেতে আগ্রহী হয়ে উঠলো। জিও-এর তরফ থেকে যে অফার দেওয়া হতো, সেই অফার কেউই হাতছাড়া করতে চাননি। তাই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে দলে দলে সবাই নাম লেখালেন জিও-তে।

জিও-এর গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। গ্রাহক বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে অভিযোগও কিন্তু বৃদ্ধি পাচ্ছে।অধিকাংশগ্রাহক জিও-এর স্লো স্পিড নিয়ে সংস্থাকে নিয়ে অভিযোগও। বহু গ্রাহকই অভিযোগ তুলেছেন তারা জিও-এর স্পিড পাচ্ছেন না ঠিক মতো। এর স্পিড খুবই কম বলে দাবি তুলেছেন তারা। তবে টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা TRAI-এর তথ্য কিন্তু অন্য কথা বলছে৷ TRAI-এর তথ্য অনুযায়ী গত সেপ্টেম্বর মাস নাগাদ 4G স্পিডের তালিকায় ডাউনলোডের দিক দিয়ে গড় গতির হিসেবে সবার উপরের স্হানে রয়েছে জিও। আর আপলোডের ক্ষেত্রে গড় গতির হিসেবে সবার উপরে স্থান পেয়েছে ভোডাফোন আইডিয়া বা ভি আই। তাহলে তথ্য গ্রাহকদের অভিযোগকে মিথ্যা প্রমাণ করছে বলা চলে।

TRAI-এর প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী গত সেপ্টেম্বর মাসে এয়ারটেল ও ভি আই-এর স্পিড বেড়েছে যথাক্রমে ৮৫ শতাংশ এবং ৬০ শতাংশ। আর এয়ারটেলের গড় ডাউনলোড স্পিড ছিল ১১.৯Mbps। ওই মাসে ভোডাফোন আইডিয়ার গড় আপলোড স্পিড ছিল ৭.২ এবং এয়ারটেল এর গড় আপলোড স্পিড ছিল ৪.৫ Mbps। এদিকে জিও-এর স্পিড বেড়েছে লক্ষণীয়ভাবে।

সেপ্টেম্বর মাসে TRAI পেশ করা আপলোড ও ডাউনলোড স্পিড সংক্রান্ত তথ্য অনুযায়ী রিলায়েন্স জিও-এর ডাউনলোড স্পিড ছিল ২০.৯ Mbps এবং গড় আপলোড স্পিড ছিল ৬.২ Mbps। জিও-এর 4G নেটওয়ার্কের স্পিড বেড়েছে ১৫ শতাংশ। এই স্পিড বৃদ্ধি বাকি দুটি নেটওয়ার্কের স্পিড বৃদ্ধির থেকে অনেকটা বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button