পুজোর আগেই লক্ষ্মীলাভ, অ্যাকাউন্টে ঢুকতে শুরু করেছে টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মতন পুজোর আগেই রাজ্যবাসী মহিলাদের অ্যাকাউন্টে ঢুকতে শুরু করেছে সারা দেশ খ্যাত লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের টাকা। এ যেন পুজোর কেনাকাটা করার জন্য সরকারের উপহার। সূত্র মারফত খবর , এখনও পর্যন্ত সর্বমোট ২০ লক্ষ আবেদনকারীর অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে প্রাপ্ত টাকা। পশ্চিমবঙ্গের জেলা- ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর ইত্যাদি বেশিরভাগ জেলার মহিলাদের অ্যাকাউন্টেই অর্থ ঢুকে গিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের নারী ও শিশু এবং সমাজ কল্যাণ মন্ত্রক সূত্রে খবর, পুজোর মধ্যেই যাতে দ্রুত উপভোক্তারা এই টাকা তাদের একাউন্টে পেয়ে যান সেই চেষ্টাই করা হচ্ছে। সাংবাদিকদের সাথে গড়বেতা-১নং ব্লকের বিডিও ‛শেখ ওয়াসিম রেজা’ এই প্রসঙ্গে বললেন,“আমার ব্লকের একাধিক উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকতে শুরু করেছে।”

তবে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতে এই প্রকল্পের টাকা যেতে শুরু করলেও ‛উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদিয়া এবং কোচবিহার’ এই চার জেলায় এখনো উপভক্তরা কেও বরাদ্ধ অর্থ পাননি। তার কারণ স্বরূপ জানা যাচ্ছে উপনির্বাচন থাকার কারণেই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে অর্থ পাবেন না সাধারণ মানুষ। তবে আধিকারিকরা আশ্বাস দিয়েছেন প্রকল্পের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন না কেউ।

এছাড়াও এই প্রসঙ্গে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদিয়া এবং কোচবিহার অর্থাৎ যে চারটি জেলায় উপনির্বাচন রয়েছে সেই জেলাগুলি বাদ দিয়ে সমস্ত জেলাগুলিকে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা আমরা দিয়ে দেব। অন্যান্য জেলাগুলি সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবর, দুই মাসের টাকা একবারে পাবেন। যে চারটি জেলায় নির্বাচন রয়েছে তাদের মন খারাপ করার কোনও কারণ নেই। উপনির্বাচন হয়ে গেলেই তাঁরা এই অর্থ পেয়ে যাবেন। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের টাকা নভেম্বরে পেয়ে যাবেন। কেউ বঞ্চিত হবেন না।”

আরও পড়ুন

Back to top button