নবমীতে লাঞ্চ ডেট! হাঁটুর বয়সী স্ত্রী দোলনের সঙ্গেই জমিয়ে পুজো উপভোগ করলেন দীপঙ্কর দে

নিজস্ব প্রতিবেদনকোনও বয়স হয় না ভালোবাসার। টলিউড অভিনেতা এবং অভিনেত্রী দীপঙ্কর রায় এবং দোলন দে এই কথাটিকে সকলের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন। ৭৫ বছর বয়সী দীপঙ্কর রায় এবং ৪৯ বছর বয়সী দোলন দে আইনি মতে বিবাহ সম্পন্ন করেন গত বছরের ১৬ ই জানুয়ারি। এই জুটি গতবছর বিবাহ সম্পন্ন করেছেন দীর্ঘ ২৫ বছর লিভ ইন সম্পর্কে থাকার পর। দুজনের মধ্যে ভালোবাসার কোনো কমতি নেই বয়সের পার্থক্য এত বেশি হলেও।

দীপঙ্কর রায় সমাজের ধরা বাধা নিয়ম রীতিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে স্ত্রী দোলনের সঙ্গে চুটিয়ে দাম্পত্য সুখ উপভোগ করছেন এই ৭৫ বছর বয়সেও। এই জুটি অন্যান্য জুটির মতোই পুজোতে সময় কাটালেন নিজেদের মতো করে। দীপঙ্কর নিজের স্ত্রীকে ফাইভ স্টার হোটেলে লাঞ্চ করাতে নিয়ে গিয়েছিলেন পুজোর সাজগোজ করে।

শুধু যে নিয়ে গিয়েছেন তাই নয় নিয়ে যাওয়ার পর রোমান্টিক ছবি তুলে, তা আবার পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। গত বছর এই জুটি বিবাহ সম্পন্ন করে দীর্ঘ ২৬ বছর লিভ ইন সম্পর্কে থাকার পর। যদিও এই জুটিকে অসংখ্য কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছিল, গত বছর তাদের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার ফলে।

কিন্তু সে সব কটাকে দিকে কোন কান না দিয়ে নিজেদের মতো জীবন অতিবাহিত করে যাচ্ছেন এই জুটি। কলকাতার নামজাদা রেস্তোরাঁয় আইটিসি সোনারে নবমীর দিন দীপঙ্কর দোলন কে লাঞ্চে নিয়ে গিয়েছিলেন। সেদিন নীল শার্টে দীপঙ্করকে এবং গোলাপী শাড়িতে দোলনকে দেখা গিয়েছিল।

তবে তারাও বাঙালি খাবার নয় খেলেন চাইনিজ খাবার। দীপঙ্কর বাবুর সঙ্গে দোলনের আলাপ হয় নব্বইয়ের দশকে অভিনয় জগতে কাজ করার সময়। তখন থেকেই দীপঙ্করের প্রতি ভালো লাগা দোলনের, তারপর থেকেই তারা সংসার জীবন উপভোগ করছেন চুটিয়ে। নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে এই জুটির মত,” আমরা নিজেদের ইচ্ছেমতো ভালোবেসেছি নিজেদের ইচ্ছায় বিবাহ করেছি তাতে কারো কিছু যায় আসার কথা নয়।”

আরও পড়ুন

Back to top button