মোদী ম‍্যাজিক এখন অতীত, গোটা রাজ‍্যেই মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের উন্নয়ন চলছে: সায়নী ঘোষ

নিজস্ব প্রতিবেদন: সম্প্রতি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বারের মতন শপথ নিয়েছেন মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার এই পদে হ্যাটট্রিক করার পর এবার লক্ষ‍্য দিল্লির প্রধানমন্ত্রীর কুর্সি। তারই জন‍্য ২০২৪ এর লোকসভা ইলেকসনকে নিজেদের পাখির চোখ করে এগোচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে তার আগে তাদের পথে একটা ছোট বাম্পার হলো উপনির্বাচন। তবে নিজের রাজ‍্যের বাকি সবকটি উপনির্বাচনে তিনি জিতবেন বলেও তার দৃঢ় বিশ্বাস।

তার এই জেতার বিশ্বাসকে আরো মজবুত করতে তৃণমূলের তারকা রাজ‍্য সভাপতি সায়নী ঘোষ বললেন, “তিনে তিন হয়েছে, এবার চারে চার হবে।” খুব সম্প্রতি গত শুক্রবারই শান্তিপুর উপ নির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে ‛ব্রজকিশোর গোস্বামী’ নিজের মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

তারপরেই জেতার আত্মবিশ্বাস যেন দুগুণ বেড়ে গিয়েছে সায়নীর। তিনি জোর দিয়ে বললেন, “মোদী ম‍্যাজিক বলে আর কিছু অবশিষ্ট নেই। গোটা রাজ‍্য জুড়েই মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের উন্নয়ন চলছে। শান্তিপুরের মানুষ একবার ধোঁকা খেয়েছে। যাকে নির্বাচিত করেছিল তিনি নিজের স্বার্থের কথা ভেবে সাংসদ হতে চলে গিয়েছেন। এবার শান্তিপুরের মানুষ বুঝেছে, তাদের পাশে যদি কেউ থেকে থাকে তাহলে সেটা মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়।”

তার দলের জয় নিয়ে নিশ্চিত ভাবে সায়নী বললেন, “এবার হবে, ২০২৪ এ হবে। এবার শুধু ওরা যাবে আর আমরা আসব। এখন শুধু ওদের চলে যাওয়ার পালা।” সায়নী ঘোষ ছাড়াও শান্তিপুরের ভূমিপুত্র তৃণমূল প্রার্থী ব্রজকিশোর গোস্বামীও নিজের ও ত্রিমুলের জয়ের ব‍্যাপারে বেশ আশাবাদী।

তিনি জনগণের উদ্দেশে জানালেন, জয়ী হলে স্থানীয় হাসপাতালের উন্নয়ন করবেন। গেরুয়ার হিন্দুত্বকে রুখতে শান্তিপুরের একজন সর্বক্ষণ পুজো অর্চনা নিয়ে ব‍্যস্ত থাকা মানুষ ব্রজকিশোরকে প্রার্থী করাকে তৃণমূলের মাস্টারস্ট্রোক বলেই মনে করছেন বিশিষ্ট মহল। এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতিকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন , পুজো নিয়ে থাকলেই যে রাজনীতিতে আসা যায় না এই জিনিসকে বিশ্বাস করেননা তিনি।

আরও পড়ুন

Back to top button