স্বল্প পোশাকে উন্মুক্ত নাভি, হট লুকে নেটদুনিয়ায় ফের ভাইরাল মা সিরিয়ালের ঝিলিক

স্যোশাল মিডিয়ার দৌলতে আমরা ট্রেন্ড কথাটির সাথে ভীষণভাবে পরিচিত হয়ে উঠেছি। তবে শুধু পরিচয়ই হয়নি আমাদের, বরং এই ট্রেন্ড ফলো করতেই হয় আমাদের। কোনো একটি বিষয় নিয়ে স্যোশাল মিডিয়ায় চর্চা শুরু হলে তা আর থামতেই চায় না। আবার কোনো একজন যদি কোনোভাবে সমালোচনার মূল বিষয় হয়ে ওঠে, তাহলে তাকে নিয়ে চর্চা যেন শেষ হতেই চায় না। এটাই যেন এই ডিজিটাল এজের ট্রেন্ড। এখন আসলে আমাদের হাতে অফুরন্ত নেট। আর নেট থাকলে জগত আমাদের হাতের মুঠোয়। তাই এই হাতের মুঠোয় থাকা মুঠোফোনের সাহায্যে আমরা আলোচনা, সমালোচনা সবই করে থাকি। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি স্যোশাল মিডিয়ার চর্চার একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অভিনেতা-অভিনেত্রী, প্রযোজক-পরিচালক কাউকে নিয়েই চর্চা বাদ যায় না।

এখন স্যোশাল মিডিয়ার অন্যতম বহু চর্চিত অভিনেত্রী তিথি বসু। দর্শক তাঁকে ঝিলিক নামেই চেনে। স্টার জলসায় যে “মা” ধারাবাহিকটি হতো সেখানে তিনি অভিনয় করতেন। এই সিরিয়ালের গল্পটা ছিল এক মা ও মেয়ের। হারিয়ে যাওয়া মেয়ের সাথে মায়ের পুনঃমিলন। ফলে বিষয়টি যেখানে মন ছোঁয়া, সেখানে সিরিয়ালটি যে জনপ্রিয় হবেই সেকথা বলার অপেক্ষা রাখে না। ভীষণভাবে জনপ্রিয় হয়েছিল সিরিয়ালটি। ১০০০-এর বেশি এপিসোড হয়েছিল সিরিয়ালটির।

এই সিরিয়ালের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিথি বসু, সিরিয়ালে যার নাম ছিল । সিরিয়ালটি করার সময় তিনি অনেক ছোটো ছিলেন, আজ অনেক বড়ো হয়ে গেছেন। তবুও এই তিথি বসু আজও জনপ্রিয়। তিনি স্যোশাল মিডিয়ায় বহু ছবি, ভিডিও পোস্ট করে থাকেন। জামা কাপড়ের বিষয়েও তিনি বেশ সাহসী, ফলে বারংবার তাঁকে সমালোচনার মুখেও পরতে হয়েছে। আবার তাঁর শরীরের মেদের কারণেও তিনি সমালোচিত হন। যদিও তিনি জিমে যেতে শুরু করেছেন বেশ অনেকদিন ধরেই।

কয়েকদিন আগে তিথি বসু তাঁর পোশাকের ফাঁক দিয়ে প্রকাশ পাওয়া তাঁর উন্মুক্ত ক্লিভেজের জন্য সমালোচিত হয়েছিলেন। এবারে তিনি আবার পোশাকের জন্য সমালোচিত হলেন। সম্প্রতি তিনি ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করেছেন তাঁর কিছু ছবি। যে ছবিগুলিতে তিথিকে নীল রঙের ডেনিম হট প‍্যান্ট আর ক্রপ টপে দেখা গেছে। তাঁর টপটি নাভির অনেকটাই ওপরে রয়েছে আর টপটি স্লিভলেসও। আর তিথি বসুর চুল খোলা এবং চোখে রয়েছে রোদচশমা।

সুইমিং পুলের ধারে তিনি এই ছবিটি তুলেছেন। ছবিটিতে যেহেতু তাঁর নাভি দেখা যাচ্ছে তাই একজন মহিলা কমেন্টে লিখেছেন তাঁকে চালনা করার ক্ষমতা কারোর নেই। একজন মহিলা হয়ে আরেকজন মহিলাকে এমন কমেন্ট করা উচিত না, এমনটাই জানিয়েছেন কিছু কমেন্টদাতা। প্রত্যেকটি মানুষের পোশাক ব্যবহারের স্বাধীনতা রয়েছে। তাই তিথি বসু যেমন ধরনের পোশাক পরুন, তাতে অন্যের সমস্যা থাকার কিন্তু কথা নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button