আজও রাজ্যের এই জেলাগুলিতে রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস! শীতের আগমন নিয়ে কী জানাল হাওয়া অফিস?

আবহাওয়ার সবরকম খবর আগে থেকে জেনে রাখা উচিত। কারণ আগে থেকে জানা থাকলে আগে থেকেই সচেতন হওয়া যাবে। তাই সবধরনের খবর জানার সাথে সাথে আবহাওয়া সম্পর্কেও আমাদের সম্যক জ্ঞান থাকা জরুরি। এখন তো আমরা মুঠোফোন থেকেই আবহাওয়ার খবর পেয়ে থাকি। এটাই আমাদের বড়ো সুবিধার বিষয়।

এবছরে বর্ষা বেশ দেরী করেই বিদায় নিয়েছে। এমনকি শরত কালে দুর্গা পুজোতেও বৃষ্টি হয়েছে। তবে পুজোর কয়েকটা দিন তুলনামূলকভাবে বৃষ্টি কম হলেও, পুজোর পর থেকে একটানা বৃষ্টি চলেছিল। লক্ষ্মী পুজোর পর বৃষ্টি মোটামুটি কমে। তবে বৃষ্টি কমার সাথে সাথেই আগমন হয় শীতে।রাত এবং ভোর বেলায় বেশ ঠান্ডা অনুভব হচ্ছে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছিল যে বর্ষা বিদায় নিতে চলেছে রাজ্য থেকে। তবে বৃষ্টি সম্পূর্ণরূপে এখনই কমবে না।

এমনিতেই রাজ্যজুড়ে হেমন্তের পরশ অনুভব করতে শুরু করেছে সবাই। এরই মধ্যেই আজ রাজ্যে ফের বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আজ রাজ্যের বেশ কিছু জেলায় হালকা বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। আবার একই সাথে আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছে, শনিবার থেকে আবার কমবে তাপমাত্রার পারদ। অর্থাৎ বৃষ্টির মাঝেই দক্ষিণবঙ্গে সপ্তাহের শেষেই মিলবে শীত অনুভূত হবে বেশি করে।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানিয়েছে যে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর থেকে উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা তৈরি হয়েছে। যে কারণে প্রচুর পরিমাণ জলীয় বাষ্পের আগমন ঘটবে। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গের কলকাতা এবং কলকাতা সংলগ্ন এলাকায় বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে।

দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু জেলার বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। বিশেষত আজ কলকাতাতে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। তবে আগামিকাল শহরের আকাশ থাকবে মেঘলা থাকলেও বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা তেমন নেই। তবে রাতের দিকে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে। কলকাতা ছাড়াও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে শনি ও রবিবার আকাশ পরিস্কার থাকবে। একইসাথে বৃষ্টির সম্ভাবনাও নেই তেমন। তবে উত্তরবঙ্গের আবহাওয়া মোটামুটি শুষ্কই থাকবে। উত্তরবঙ্গে তেমন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ এখানে কোনো নিম্নচাপ অবস্থান করছে না। তাই উত্তরবঙ্গের আকাশ পরিস্কার থাকবে। তবে রাতের বেলা শীত অনুভূত হবে।

বর্ষা চলে যাওয়ায় শীত বৃদ্ধি পাবে এমনটাই জানিয়েছিল হাওয়া অফিস। তাই কবে রাজ্যে পাকাপাকিভাবে শীত আসবে সেই তথ্য জানতে চায় আবহাওয়া দপ্তর। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে তাই জানিয়েছে শনিবার থেকেই রাতের দিকে তাপমাত্রার পারদ আরোও কমতে শুরু করবে। বর্তমানে রাতের বেলায় সরবনিম্ন তাপমাত্রা থাকছে ২৪ ডিগ্রির আশেপাশে। তবে শনিবার থেকে তাপমাত্রা ২১ থেকে ২২ ডিগ্রি পর্যন্ত নেমে যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button