আর কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘন দুর্যোগ নেমে আসছে বাংলার ওপর! এই এই জেলায় হতে পারে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টি! জানালো আবহাওয়া দপ্তর!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সপ্তাহ দুয়েক সময় ধরে ভারী বৃষ্টিপাত এবং নিম্নচাপের পর গত দুই দিনে কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছে বাংলার পরিস্থিতি। রাজ্যজুড়ে এখন ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। প্রবল বর্ষণের কারণে এবং জলাধার থেকে জল ছাড়ার জন্য রাজ্যের বিভিন্ন অংশে কোমরসমান জল দাঁড়িয়ে রয়েছে। বেশ কয়েকটি বাঁধ ভেঙ্গে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। যার ফলস্বরুপ ক্রমাগত পরিস্থিতি আরো কঠিন হচ্ছে।

এমতাবস্থায় আবারো দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে ব-জ্রবি-দ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস জানান আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। অর্থাৎ আগামী কয়েক দিন এবং দুর্গাপূজার সময়ও বৃষ্টির মুখোমুখি হতে চলেছে বাংলা।তবে এই বৃষ্টির পরিমাণ কতটা হবে তা এখনই স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। সূত্রের খবর অনুযায়ী রবিবার থেকেই প্রবল বর্ষণ শুরু হতে পারে পূর্ব বর্ধমানে। পাশাপাশি কলকাতা, মালদা, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর প্রভৃতি জেলাতেও রয়েছে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।

উত্তরবঙ্গের বেশকিছু জেলাতেও বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি দেখা দিতে পারে। এই জেলাগুলির মধ্যে রয়েছে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, কালিম্পং এবং আলিপুরদুয়ার। কলকাতা সংলগ্ন বেশ কয়েকটি জেলা ইতিমধ্যেই জলের তলায় রয়েছে। এরইমধ্যে দামোদর নদীর জল স্তর বৃদ্ধির কারণে জল ছাড়তে বাধ্য হয়েছে ডিভিসি। প্রায় 1 লক্ষ 35 হাজার কিউসেক জল এখনো পর্যন্ত ছেড়েছে ডিভিসি। যার ফলস্বরুপ রাজ্যের বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়ে গিয়েছে।

মাইথন জলাধার থেকেও প্রায় 80 হাজার কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে।অতএব এই পরিস্থিতিতে যদি আবারো ভারী বৃষ্টিপাত দেখা দেয় তাহলে আরো দুর্যোগের মুখোমুখি হতে পারে রাজ্যবাসী। ইতিমধ্যেই প্লাবিত এলাকাগুলি পরিদর্শনে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।আপাতত দুর্যোগ পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য দফায় দফায় বৈঠক করছেন তিনি।প্রত্যেক জেলায় পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মন্ত্রীদের পাঠানো হয়েছে।প্রায় দেড় লক্ষ মানুষকে ত্রাণশিবিরে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button