এক ঝলকে দেখে নিন কলকাতা থেকে মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরত্বে ছুটি কাটানোর দুর্দান্ত এই জায়গাগুলি! রইল বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যখনই আমাদের জীবনে একঘেয়েমি গ্রাস করে তখনই আমরা চাই যে বাইরে কোথাও কিছুদিনের জন্য ঘুরে আসি । একা নিরিবিলিতে সময় কাটিয়ে আসা হবে একান্ত নিজের । কিন্তু বাইরে যেতে গেলে যে মোটা অঙ্কের টাকা লাগে তার কথা চিন্তা করে আমরা বার বার পিছিয়ে আশী । তবে এবার আর পিছিয়ে আসার কোনো উপায় নেই । কারণ আপনি আপনার রাজ্যের কাছাকাছি পেয়ে যাবেন এমন কিছু জায়গা যেখানে খুব স্বল্প মাত্রায় টাকাতে উপভোগ করতে পারবেন প্রকৃতির ছোঁয়া কে ।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য থাকে সামনে রেখে আমাদের আশেপাশে এমন অনেক রিসোর্ট বা পর্যটন স্থান গড়ে উঠেছে । সেই সমস্ত জায়গা গুলো প্রতিনিয়ত উন্নত হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার সেই সমস্ত পর্যটনশিল্পকে আরও উন্নত করার চেষ্টা করছে। ঠিক তেমনই আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানাবো কলকাতার আশেপাশে কম দামে কিছু রিসোর্টের কথা জীবনী সম্পর্কে হয়তো আপনারা এখন অভিযানের না।

দ্বারহাট্টা টায়ার হাউস:- সাধারণত কলকাতা থেকে মোটামুটি ৫৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এটি গ্রামবাংলার স্বাদ কে উপভোগ করতে চাইলে প্রতি অবশ্যই এই রিসোর্টের আসতে পারেন। শুধু মাটি এবং টায়ার দিয়ে তৈরি হয়েছে এই রিসোর্ট। খাবার টেবিল থেকে শুরু করে শুতে যাওয়ার খাট সবকিছুতে রয়েছে এর ব্যবহার। তার পাশাপাশি গ্রাম বাংলার পরিবেশের সাথে প্রাকৃতিক পরিবেশকে উপভোগ করার জন্য এখানে আসা সবথেকে বুদ্ধিমানের কাজ হবে আপনার জন্য । দুইজনের জন্য এক রাতের ভাড়া হচ্ছে ২০০০ টাকা চারজনের জন্য এক রাতের ভাড়া হচ্ছে তিন হাজার টাকা। চাইলে একদিনে গিয়ে আবার ফেরত আসতে পারেন।

ইবিজা রেসর্ট :- কলকাতা থেকে মাত্র এক দেড় ঘন্টা দূরে দূরে অবস্থিত। এমনকি হাওড়া থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এটি। বুঝতে পারছেন কলকাতার সংলগ্ন অঞ্চলে অবস্থিত এটি। আধুনিকতার সাথে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অভূতপূর্ণ মেলবন্ধন ঘটানো হয়েছে এই রিসোর্টের। রিসোর্ট রুম ভাড়া শুরু হচ্ছে তিন হাজার টাকা থেকে সাথে আপনাকে ব্রেকফাস্ট দেওয়া হবে। অন্যান্য বাকি সময়ে খাবার আপনাকে কিনে নিতে হবে। সুইমিং পুল থেকে শুরু করে জিম, ডিস্ক ইনডোর গেম সব কিছু রয়েছে এর মধ্যে।

সুন্দরবন রিসোর্ট:- সুন্দরবন এ কথা আমরা প্রত্যেকেই জানি। সুন্দরবন যে সমস্ত গ্রাম গু-লির রয়েছে সেই গ্রামগুলিতে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে এই সমস্ত রিসোর্ট গু-লি। প্রাকৃতিক মেলবন্ধন তো রয়েছেই তার পাশাপাশি রয়েছে গভীর জঙ্গলের রোমাঞ্চকর অনুভূতি সঞ্চয় করার নিদারুন সুযোগ। এই রিসোর্টের থাকার জন্য প্রতি রাতে হয়তো আপনাকে ২০০০-৩০০০ হাজার টাকা খরচ করতে হতে পারে । পাশাপাশি মাথাপিছু প্রতিদিন খাবারের প্রায় ৯০০ টাকা খরচ হবে। এখানে আসার জন্য আপনাকে প্রথমে কাকদ্বীপ স্টেশনে নামতে হবে। কাকদ্বীপের ট্রেন পাবেন আপনি শিয়ালদা থেকে। সেখান থেকে ফেরি তে করে গোসাবা ফেরিঘাটে আসতে হবে। তারপর লোকাল ট্রান্সপোর্টে করে সোজা এই রিসোর্ট এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button