বিজেপির যুব সংগঠনের নতুন মুখ দেখা গেল দস্যু বীরাপ্পন এর মেয়েকে

berappan daughter is now youth face of bjp
berappan daughter is now youth face of bjp
Advertisement

বাবার দেখানো পথে কখনোই হাঁটেননি তার মেয়ে, বরাবর সমাজ সেবার কাজে নিজেকে ঠেলে দিয়েছেন দস্যু বীরাপ্পন এর কন্যা । এবার তাকে দেখা যাচ্ছে তামিলনাড়ুর গেরুয়া শিবিরে অর্থাৎ তিনি এখন সেখানকার বিজেপি যুব মুখপাত্র

আশি নব্বই এর দশকে চন্দন বীরাপ্পন ছিল দক্ষিণ ভারতের ভিলেন। বহু অভিযোগ ওঠে তার নামে। তবে এবার তার বড় মেয়ে বিদ্যা রানী কে তামিলনাড়ু বিজেপির যুব সভাপতিত্বের পদের দায়িত্ব দিয়েছে ২৯ বছরের যুবতী মনে করেন যে তার জীবনের লক্ষ্য হলো, সাধারণ মানুষের সেবা করা , তবে তিনি আরো বলেছেন যে পরিস্থিতির চাপে তার বাবাকে ওইসব দিকে টেনে নিয়ে গিয়েছিল।

তামিলনাড়ুতে সেভাবেই কোন সংগঠন ছিল না বিজেপির তাই এবার তরুণদের হাত ধরে গেরুয়া ব্রিগেড তাদের আধিপত্য ফেলানোর চেষ্টা করছে । বিদ্যা বীরাপ্পন পেশায় একজন আইনজীবী এছাড়া থাকেন অনেক সমাজ সেবা মূলক কাজের সঙ্গে।

ফেব্রুয়ারি মাসেই তিনি গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেন যোগদান করার সময় থেকেই তিনি স্পষ্ট করে দেন যে তিনি আছেন সবসময় মানুষের পাশেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কিছু কিছু বিষয়ে তার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে তাই তিনি সেই সমস্ত প্রকল্প পৌঁছে দিতে চান তামিলনাড়ুর প্রতিটি মানুষের মধ্যে।

মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যেই গেরুয়া শিবিরে নয়নের মণি হয়ে উঠেছেন বিদ্যা শুধু শিবিরেই নয় তিনি জনগণের কাছে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি তার বাবার চলার পথে না হেঁটে নিজের পথ নিজেই বেছে নিয়েছে। যেটি সবার কাছেই থাকে সম্মানের পাত্র করে তুলেছে।

তিনি নিজেই স্বীকার করেছেন তাকে এখন যে পরিমাণ সম্মান দেওয়া হয় তা তিনি কোনওদিনই কল্পনা করেননি তিনি সবাইকে তার পাশে থাকার জন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রায় দেড়শ জনকে খুন এবং শতাধিক হাতি শিকার এর অভিযোগ উঠেছিল তার বাবার ওপর 2004 সালে তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং গোলাগুলিতে সেখানে মৃত্যু হয়।

তার যদিও মেয়ে মানতে নারাজ যে তার বাবা সত্যি সত্যি যেমন ছিল তার কথা অনুযায়ী পরিস্থিতি এমন কাজ করতে বাধ্য করিয়েছে তিনি তার বাবাকেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে ভালো করে পড়াশোনা করে নি সাধারণ মানুষের সেবার পাত্র হয়ে উঠবে আর এখন এমনটাই তিনি করছেন ।।

Advertisement