ভারতের একমাত্র মন্দির, যেখানে ভগবানকে প্রসাদ হিসেবে দেওয়া হয় চিকেন ও মটন বিরিয়ানি

chicken biriyani in prasad
chicken biriyani in prasad

ঠাকুরের পুজোয় প্রসাদ বলতে আমরা সাধারণত দই, কলা, মিষ্টি, ফল, নকুলদানা প্রভৃতি জিনিসকে বুঝি। কিন্তু ভাবতে পারেন যে প্রসাদ হিসেবে পাওয়া যেতে পারে বিরিয়ানি? কথাটা শুনে একটু অবাক হলেন তাইতো? বিরিয়ানি আমাদের সকলেরই প্রায় প্রিয় খাবার। বিভিন্ন উৎসবে প্রায়শই ছুটে যাই আমরা এই বিরিয়ানির লোভে। এবং আপনি এখন যা শুনতে চলেছেন তাতে সত্যিই অবাক হয়ে উঠবেন। এই লোভনীয় খাবারটিকে প্রসাদ হিসেবে দেওয়া হয় তামিলনাড়ুর একটি বিখ্যাত শিব মন্দিরে। যেটি অবস্থিত মাদুরাইতে। এখানে ভক্তদেরকে প্রসাদ হিসেবে মাটন ও চিকেন বিরিয়ানি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুনঃ দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারে না কেউ, কারন জানলে আপনিও শিঁউরে উঠবেন

অবিশ্বাস্যকর হলেও এটি একেবারেই সত্যি। এবং এই সুস্বাদু বিরিয়ানি খেতে হলে আপনাকে যেতেই হবে তামিলনাড়ুর এই বিখ্যাত শিব মন্দিরে।নতাহলে আপনি পেয়ে যাবেন সুস্বাদু বিরিয়ানি ভগবান শিবের প্রসাদ হিসেবে। তামিলনাড়ু মাদুরাইতে ভদাক্কমপত্তিতে মুনিয়ান্ডি স্বামীর মন্দির রয়েছে। এই মন্দিরে পূজিত হন মুনিশ্বর। এটি শিবেরই অপর এক নাম। এই মন্দিরটিতে বছরের পর বছর ধরে একটি উৎসবের আয়োজন করা হয় এবং এই উৎসবের সময় ভক্তদেরকে প্রসাদ হিসেবে বিরিয়ানি দান করা হয়।

আরও পড়ুনঃ নিষ্ঠাভরে নিয়ম মেনে করুন গজানন গণেশের পূজা, সংসার ভরে উঠবে ধনরত্ন এবং শ্রীবৃদ্ধিতে

বিগত ১৯৭৩ সাল থেকে এমনটাই চলে আসছে। প্রতিবছর জানুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহের শুক্রবার এবং শনিবার এই মন্দিরে এক বিশাল উৎসবের আয়োজন হয়। এ উৎসবে আগত ভক্তদেরকে দান করা হয় প্রচুর পরিমাণ অর্থের প্রসাদ। এইসময় প্রায় ১০০০ কিলো গ্রাম চাল ২৫০ টা ছাগল এবং ৩০০ টি মুরগি লাগে প্রসাদ তৈরির জন্য। দূর দূর থেকে যে ভক্তরা মন্দির দর্শন করতে আসে তাদেরকে প্রত্যেককে বসিয়ে বিরিয়ানি বিতরণ করা হয়। এবং যারা বসে খেতে পারবেন না তাদের জন্য প্যাকেট সিস্টেম রাখা আছে।