দক্ষিণেশ্বর ঘাটে নিষিদ্ধ হল ছট পূজাও, দর্শনার্থীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করল মন্দির কর্তৃপক্ষ

Chhat Puja was also banned at Dakshineswar Ghat, temple authorities banned visitors from enteringChhat Puja was also banned at Dakshineswar Ghat, temple authorities banned visitors from entering
Chhat Puja was also banned at Dakshineswar Ghat, temple authorities banned visitors from enteringChhat Puja was also banned at Dakshineswar Ghat, temple authorities banned visitors from entering

বাংলা খবর ডেস্ক: তর্পনের মত এবার নিষিদ্ধ হলো ছট পুজো ও। এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকবে না এই আশঙ্কাতেই প্রবেশ নিশিদ্ধ করল মন্দির কর্তৃপক্ষ। আগামী ২০ শে নভেম্বর ছট পুজোর জন্য মন্দির চত্বরে যাতে দর্শনার্থীদের প্রবেশ না ঘটে,তার জন্য পুলিশ প্রশাসনের ওপর দায়িত্ব দিল মন্দির কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন – দেশ আগে নাকি মুম্বই ইন্ডিয়ান্স? এবার বড় প্রশ্নের মুখে রোহিত শর্মা

প্রতিবছরই ছট পূজার জন্য দক্ষিণেশ্বরে লক্ষাধিক পুণ্যার্থীর ভিড় জমা হয়। দুপুর ২ টো থেকে জমায়েত শুরু হয়ে যায় সেখানে আর একেবারে সূর্যাস্ত অবধি চলে সেই পূজার্চনা। এরপরের ভোর চারটে মন্দিরের দরজা খোলা অবধি পূজা করতপন পুণ্যার্থীরা। সূর্যোদয় পর্যন্ত গঙ্গার ঘাটে পূজা চালিয়ে যেতেন তারা। এই পূজার্চনা কালে চাঁদনীঘাট, পঞ্চপট্টি ঘাট এবং অন্যান্য ঘাট ও গোটা মন্দির চত্বরে পা রাখার জায়গা থাকত না। সেই ভিড় সামলাতেও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করতে হতো।

আরও পড়ুন – জয়ের পর বিডেনকে শুভেচ্ছাবার্তা বারাক ওবামার। বললেন এটা ঐতিহাসিক জয়

তবে এ বছর এই করোনা পরিস্থিতির মধ্য সংক্রমণের কথা ভেবে মহালায়া, ছট পুজো প্রভৃতি নিষিদ্ধ করল কর্তৃপক্ষ। এর পাশাপাশি কালীপুজোর রাতেও বেশকিছু করাকরি করেছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। এবছর সারারাত ধরে মায়ের পুজো দেখার অনুমতি দেয়া হবে না কাউকেই অর্থাৎ মন্দির চত্বরে প্রবেশ নিষেধ করা হবে সেই দিন এবং মন্দির চত্বরে কোনো রকম কোনো আতশবাজি ও পড়ানো যাবে না।