ডিসেম্বরেই ভারতের বাজারে আসতে চলেছে করোনা ভ্যাকসিন, দাম হবে সাধ্যের মধ্যেই

Corona vaccine is coming to the Indian market in December, the price will be affordable
Corona vaccine is coming to the Indian market in December, the price will be affordable

বাংলা খবর ডেস্ক:  বর্তমানে করোনাভাইরাস অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকলেও একেবারে দাপট কমেনি। তবে পুনে ভিত্তিক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া এবার আশার আলো দেখাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার একটি সাংবাদিক বৈঠকে ওই সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়, কোভিড যোদ্ধা এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের স্বাস্থ্যের কথা ভেবে ‘কভিশিল্ড’ সীমিতভাবে ব্যবহারের জন্য কেন্দ্রের কাছে জরুরী অনুমোদনের আর্জি জানান হবে। মহিলা ডিসেম্বরের মধ্যেই ভ্যাকসিন যাতে ভারতের বাজারে আনা যায় তার জন্য ডিজিসিএ- এর কাছেও আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন সেরাম সংস্থার প্রধান। অক্সফর্ড এবং আ্যস্ট্রোজেনেকা বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা নির্মিত কভিড-19 ভ্যাকসিনের ভারতীয় নাম ‘কভিশিল্ড’।বৃহস্পতিবার দ্য ল্যানসেট জার্নালে এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা এবং ফলাফলের কথা প্রকাশিত হয়েছে ‌। অক্সফোর্ড আ্যস্ট্রোজেনেকার সঙ্গে যুক্তি করে যৌথভাবে ভারতে এই ভ্যাকসিন উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট।

আশা করা যাচ্ছে সম্ভবত 2021 সালের মার্চের এপ্রিলের মধ্যে কোভিড দেশের বাকি জনসাধারণের জন্য উপলব্ধ হতে পারে, এসআইআইয়ের সিইও আদর পুনাওয়াল্লা এইচটি লিডারশীপ সম্মেলনে জানান এ কথা।

আপাতত ডিসেম্বরের মধ্যে সীমিত সংখ্যক ভ্যাকসিন আনতে চান তারা। সংস্থা প্রধান বলেন,এই টিকাটি 2 ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে 8 ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা যেতে পারে। সাধারণ মানুষের জন্য বেসরকারিভাবে বাজারের মূল্য 500 থেকে 600 টাকার মধ্যে হতে পারে। তবে সরকারি ক্ষেত্রে দাম আরো কম হতে পারে বলেই জানানো হয় সংস্থার পক্ষ থেকে।আদর পুনাওয়াল্লা জানান, ভ্যাকসিন কি 3 থেকে 4 ডলার অর্থাৎ 225 থেকে 300 টাকায় পাওয়া যাবে সরকারিভাবে। এত কম দামে এই ভ্যাকসিন পাওয়ার কারণ,সরকারের জন্য কয়েক লক্ষ ডোজ একসঙ্গে প্রস্তুত করা হবে।