‘বেলেল্লাপনা করে বেড়াচ্ছেন’, বৈশাখীর সিঁথিতে শোভনের সিঁদুরদান নিয়ে মন্তব্য পুত্রর

নিজস্ব প্রতিবেদন:সমগ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় হচ্ছে একটি খবর বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। দূর্গা পূজার দশমীর দিন অকপট স্বীকারোক্তি দিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় শোভন আমার সিথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিল। এই নিয়ে প্রতিবাদ জানালো শোভন পুত্র ঋষি চট্টোপাধ্যায়। তার কথায় ‘ তারা দুজনে রোমান্টিক ভাবে সম্পর্কটাকে উপস্থাপনা করতে চাইছেন। কিন্তু আদতে তারা বেলেল্লাপনা করে বেড়াচ্ছেন।’এমনই কি শোভনের বিরুদ্ধে কথা বলতেও ছাড়েনি শশুর দুলাল দাস।

দশমীর দিন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এর একটি ভাইরাল করা ছবি কে কেন্দ্র করে বিতর্ক সৃষ্টি হয়, যেখানে দেখা যাচ্ছে, শোভন চট্টোপাধ্যায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিয়েছেন । প্রাথমিকভাবে ছবিটি ভুও বলে মনে হলেও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে ‘ছবিটি আসল ‘। আর তারপর থেকেই শুরু হয় তোলপাড়।

এবার এই ভাইরাল করা ছবি কে কেন্দ্র করে প্রতিবাদ জানালেন শোভন পুত্র তিনি বললেন যে ‘দুর্গাপূজায় সিঁদুরখেলা হতেই পারে।কিন্তু আমার একটা প্রশ্ন রয়েছে দুর্গাপুজোয় শরীয়ত আইন মানা হয়না । দুর্গা পুজো বাঙালির সবথেকে বড় উৎসব। শোভন চট্টোপাধ্যায় বিবাহিত হওয়া স্বত্বেও কিকরে তিনি একজনের সিঁথিতে সিঁদুর পড়াতে পারেন যিনি অন্যের স্ত্রী ,আর তার বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি।’

শশুর দুলাল দাস এর উক্তি’ বিয়ে নয় এটাকে ব্যভিচার বলে’। ঋষি আরো বলেন যে ‘শোভন প্রতিদিন স্নান করে কালী পুজো করেন।তিনি যখন হিন্দু ধর্ম মানেন তাহলে এত বড় একটা কাজ তিনি কি করে করতে পারেন দুর্গাপুজোয় মহিলাদের সর্বোচ্চ শক্তির আরাধনা হিসেবে ধরা হয়। আর এই দুর্গাপুজোয় তিনি নিজের স্ত্রীর অপমান করে অন্যের স্ত্রীর সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিয়েছেন। ইসলাম ধর্মেও বলা হয় যদি আপনি দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন তাহলে নিজের স্ত্রীর মতামত প্রয়োজন। এখানে তো তিনি বেলেল্লাপনা করে বেড়াচ্ছেন।’

‘শোভন চট্টোপাধ্যায় কোন সাধারণ ব্যক্তিত্ব নন তিনি কলকাতার মেয়র থাকাকালীন নিজের মন্ত্রিত্ব সামলেছেন তিনি ধার্মিক বিষয় নিয়ে কেন ফেলছেন আমার উত্তর চাই এবার সাধারন মানুষকে তাকে জবাব দিতেই হবে তিনি কেন বেলেল্লাপনা করে বেড়াচ্ছেন।’ দাবি ঋষির। সবমিলিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের দিকে ক্ষোভ উগরে দিয়ে ঋষি চট্টোপাধ্যায় বলেন ‘এভাবে অন্যের সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দেওয়া হিন্দু আইন বিরুদ্ধ।’ এই ভাইরাল ছবিকে ঘিরে তুমুল ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।

আরও পড়ুন

Back to top button