ফের আঘাত পেলেন ঐন্দ্রিলা! হারিয়ে ফেললেন আরো এক কাছের মানুষকে

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাঙালির সেরা উৎসব দুর্গাপূজা সবেমাত্র শেষ হলো। কিন্তু বাঙালি এখনো পুজো রেশ কাটিয়ে উঠতে পারেনি। কিন্তু এর মধ্যেই অন্ধকার নেমে এলো ঐন্দ্রিলা শর্মার জীবনে। তাকে ছেড়ে চিরকালের জন্য চলে গেলেন তাঁর পরমাত্মীয় দুষ্টু মা।

ঐন্দ্রিলা কিছুতেই তাঁর চলে যাওয়ার কথা মেনে নিতে পারছেন না। ইনস্টাগ্রামে দুষ্টু মায়ের সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে ঐন্দ্রিলা লিখেছেন,” আজ খুব কাছের মানুষকে হারিয়েছি আমি। দুষ্টু মা আমাকে বলতো, তোর থেকে আমি শক্তি পাই, তুই আমার ইন্সপিরেশন। দিল্লি থেকে যখন আমি ফার্স্ট কেমো নিয়ে আসলাম দুষ্টু মা আমাকে বলেছিল, আমাদের জীবনটা তো অত সুখের নয়, কিন্তু লড়কে লেঙ্গে। কিন্তু শেষ হলো না লড়াইটা। আমার চোখে দেখা সাহসী মানুষ, সব সময় হাসিমুখে লড়ে গিয়েছে। নিজের কষ্টগুলো আমার কাছে শেয়ার করতো, আর বলতো, অন্য কেউ তো আর বুঝবে না।”

View this post on Instagram

A post shared by Aindrila Sharma (@aindrila.sharma)

তিনি আরও যোগ করে বলেন,” এটা বিশ্বাস করতে পারছিনা যে, দুষ্টু মার নাম্বারে ফোন করলে, আর দুষ্টু মার গলাটা শুনতে পাবো না। আমাকে বলেছিল, একদিন শুটিং দেখতে যাব, কিন্তু সেই ইচ্ছাটাও পূরণ হলো না। বিশ্বাস করতে পারছি না দুষ্টু মাকে আর দেখতে পাবো না, আমার হৃদয়ে তুমি থাকবে চিরকাল। আই লাভ ইউ দুষ্টু মা।” ইনস্টাগ্রামে ঐন্দ্রিলার এই পোস্টের পর কমেন্টে অনেকেই লিখেছেন তারাও দুষ্টু মায়ের চলে যাওয়ার এই মর্মান্তিক খবর মেনে নিতে পারছেন না।

অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে ঐন্দ্রিলার। কেমোথেরাপির দ্বিতীয় সাইকেলেও শুরু হয়েছে। ৬ ই অক্টোবর কেমোথেরাপি দেওয়ার পর সব্যসাচী চৌধুরী ঐন্দ্রিলা কে নিয়ে এক পুজোর রাতে ঠাকুর দেখতে গিয়েছিলেন। কিন্তু মানুষের ভিড় দেখে বাড়ি ফিরতে চেয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। এক অনামী মণ্ডপে তিনি দাঁড়িয়েছিলেন বাড়ি ফেরার পথে। সাবেকি সাজের মা দুর্গাকে তাঁদের দুজনের মনে হয়েছিল আটপৌরে মায়ের মতন।

আরও পড়ুন

Back to top button