গরম চলে এলো’, হট লুকে ঝড় তুললেন উত্তম কুমারের নাতবৌ দেবলীনা, ভাইরাল ছবি

জীবন একবার না একবার প্রত্যককে সুযোগ দেয় নিজের স্বপ্ন পূরণ করার। যে সেই লক্ষ্য পূরণ করতে পারে, সে যেতে। আর বাকিরা হেরে যায়। তেমনই দেবলীনা কুমারের জীবনেও এমন সুযোগ এসেছিল। একটি নাচ তাঁকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছিল। “রঙ্গবতী, রঙ্গবতী”- গানটিই তাঁর জীবনের মাইলফলক। ‘গোত্র’ সিনেমাতে এই গানটির সাথে নাচ করেছিলেন দেবলীনা কুমার। এরপর আর ফিরে তাকাননি তিনি। জীবন তাঁকে দ্বিগুণ ফিরিয়ে দিয়েছে।

পুজোর প্যান্ডেলে, বিয়বাড়ির মন্ডপে, মোড়ের মাথায়, বাড়ির ছাদে কারণে অকারণে এই গানটার সাথে নাচতে দেখা গেছে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সেলিব্রেটিদের। ইমন চক্রবর্তীর বিয়ের অনুষ্ঠানই হোক বা কোনো সাধারণ বিয়ের মন্ডপ সব জায়গাতে বাজতেই হবে এই গানটি। আর এই গানটিতে যিনি নাচ করেছিলেন তিনি ও তাঁর স্টেপ ভুলতে পারবে না আবেগপ্রবণ সঙ্গীত ও নৃত্য প্রেমীরা। তবে শুধু নৃত্য পরিবেশন নয়, তিনি হামি’ সিনেমা সহ বেশকিছু জায়গায় অভিনয়ের সুযোগ এসেছে তাঁর কাছে। এখন তিনি ‘ডান্স বাংলা ডান্স’-এর মঞ্চে প্রতিযোগীদের নাচের জন্য তালিম দেন।

গতবছর ৯ই ডিসেম্বর তিনি বিবাহ করেছিলেন উত্তম কুমারের নাতি অভিনেতা গৌরব চ্যাটার্জীকে। এরপর থেকে আনন্দ, মজাতে কেটে যাচ্ছে তাঁদের জীবন। তবে কাজে ফাঁকি দিলে কি আর চলে? তাই যে যার মতো কাজ করে চলছেন। দেবলীনা বরাবরই স্বাধীনচেতা। খোলামেলা পোশাকে ছবি দিতে তিনি দ্বিধাবোধ করেন না। আর করবেন কেন? লোকে কি বললো তাতে তাঁর কিই বা এসে যায়? বেশ কয়েকবার তিনি সমালোচিতও হয়েছিলেন। তাতে তাঁর কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই।

দেবলীনা যেহেতু নৃত্যশিল্পী, তাই তাঁকে সবসময় ফিট থাকতে হয়। তিনি রীতিমতো শরীর চর্চা করে থাকেন। আর শরীর চর্চার মাধ্যমেই তিনি ‘ফিট অ্যান্ড ফাইন ‘ থাকেন। এবারে আবার তিনি ধরা দিলেন গেল হট অবতারে। ইনস্টাগ্রামে সম্প্রতি একটি ছবি পোস্ট করেছেন তিনি যেখানে তাকে শাড়ি পরিহিতা অবস্থায় দেখা গেছে। তবে তিনি শাড়ি তো পড়েছেন,কিন্তু শাড়ির সাথে স্লিভলেস সেক্সি ব্লাউজে তাঁকে দেখা গেছে। আর শাড়ির ফাঁক দিয়ে দেখা যাচ্ছে তাঁর পেট। সিল্কের শাড়ি আর উন্মুক্ত পেট- এই দুইয়ের কম্বিনেশনে তিনি উষ্ণতার ছড়িয়েছেন। ছবিটি প্রচুর মানুষ পছন্দ করেছেন। আর ক্যাপশনে লিখেছেন- গরম আসছে। এই গরম, উষ্ণতা প্রকৃতির নয়, তাঁর রূপের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button