Rooqma Ray: হতাশ মুখে পাহাড়ে রুকমা, ‘দেশের মাটি’ শেষ হতেই মনখারাপ মাম্পির!

দর্শকদের অন্যতম পছন্দের ধারাবাহিক ‘দেশের মাটি’ আপাততঃ সমাপ্ত হয়েছে। মোট ২৩৫ টি পর্ব অতিক্রম করার পর সমাপ্ত হয়েছে এই ধারাবাহিক। এই সিরিয়ালের শুটিংয়ের শেষ দিনে একটি কেক কেটে এই ধারাবাহিকের সমাপ্তির কথা পুরোপুরি জানিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফে। শুটিংয়ের শেষ সকলে মিলে একটি নীল-সাদা রঙের বড় কেক কেটেছিলেন। এই কেকটি পাঠানো হয়েছিল চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফে। আর এই কেকের উপর লেখা ছিল ‘দেশের মাটি’। তার সঙ্গেই রয়েছে মূল চরিত্রদের ছবি। ওই দিন ধারাবাহিকের মুখ্য অভিনেত্রী ‘নোয়া’ অর্থাৎ শ্রুতি দাস এই কেকের ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছিলেন। এমনকি ‘মাম্পি’ অর্থাৎ (রুকমা রায়) ও রাজা অর্থাৎ রাহুল অরুনোদয় ব্যানার্জী লাইভেও এসেছিলেন। শোনা যাচ্ছে টি আর পি কমে যাওয়ার জন্যই নাকি বন্ধ হয়েছে এই ধারাবাহিক।

এই ধারাবাহিকে মুখ্য অভিনেত্রী নোয়ার চরিত্রে অভিনয় করতেন শ্রুতি দাস। তাঁর ব্যক্তিত্বের জন্য তিনি দর্শকদের অন্যতম পছন্দের শিল্পী হয়ে উঠেছেন। এছাড়াও তাঁর চরিত্র চিত্রণের নিপুণতা মুগ্ধ করে দর্শকদের। তবে নোয়ার পাশাপাশি আরেকটি নারী চরিত্র খুব জনপ্রিয় হয়েছিল এই ধারাবাহিকের। মাম্পির চরিত্রটি খুব জনপ্রিয় হয় দর্শকদের কাছে। বিশেষতঃ রাজা-মাম্পির জুটিকে দর্শকরা খুব পছন্দ করতেন। এমনকি বাস্তবে তাঁরা নাকি প্রেম করছেন, এমনটাই সন্দেহ করেছিলেন দর্শকরা। যাই হোক মাম্পির চরিত্রে অভিনয় করতেন রুকমা রায়। রুকমা রায়কে এর আগেও বাংলা ধারাবাহিকে দেখা গেছে। তবে দেশের মাটি ধারাবাহিক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাঁরও বেশ মনখারাপ।

View this post on Instagram

A post shared by Rooqma Ray (@rayrooqma)

তবে ধারাবাহিকে শুটিংয়ের কাজ শেষ হয়ে যাওয়ায় তিনি কয়েকদিনের জন্য ঘুরে এলেন নর্থ বেঙ্গল থেকে। সেখান থেকে বেশ কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন রুকমা। নর্থ বেঙ্গলের চটকপুর গ্রামে ঘুরতে গিয়েছেন তিনি। সেখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ তিনি উপভোগ করছেন। স্যোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করা তাঁর ছবিতে তাঁর পরনে রয়েছে সবুজ পুলওভার ও ডেনিম জিনস। আর তাঁর পিঠে ছিল লেদারের ব্যাকপ‍্যাক। একটি ছবিতে দেখা গেছে পাহাড়ী নৈসর্গিক সৌন্দর্যের দিকে তাকিয়ে পাহাড়ের সৌন্দর্য উপভোগ করছেন তিনি। আরেকটি ছবিতে দেখা যায় চটকপুরের রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন রুকমা। এই ছবিগুলি শেয়ার করে ক্যাপশন রুকমা লিখেছেন, জীবনে যখন চড়াই-উতরাই-এর সম্মুখীন হতে হয়, তখন উচ্চতার কথা ভাবা উচিত। ছবিটির কমেন্ট বক্সে বিভিন্ন ধরনের কমেন্ট এসেছে। তবে দর্শকদের বেশিরভাগ অংশ জানিয়েছেন তারা সবাই মিস করবেন মাম্পিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button