বিজয়ায় বৈশাখীর সিঁথিতে সিঁদুর দিল শোভন, এই বিষয়ে কি বললেন বৈশাখীর স্বামী মনোজিৎ

নিজস্ব প্রতিবেদন:গতকাল থেকেই নেট পাড়ায় তুমুল হইচই পড়ে গিয়েছে শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কে ঘিরে। একটি বেসরকারি চ্যানেলের আয়োজিত বিজয়া দশমীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিল শোভন চট্টোপাধ্যায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে গিয়েই শোভন বৈশাখী সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দেয়।

মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় সেই ছবি। প্রাথমিকভাবে ছবিটিকে ভূয় বলে মনে করা হলেও পরে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে ‘এটি আসল ছবি। ‘ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে ‘আমাদের কোনদিন স্বীকৃতির অভাব ছিল না।’ এই ছবি প্রকাশ্যে আসার পরেই ক্ষোভ উগরে দেয় রত্না পুত্র ঋষি এবং বাবা দুলাল দাস।

কিন্তু এই নিয়ে কোনো বিতর্কিত মন্তব্য করলেন না বৈশাখীর আইনত স্বামী মনোজিৎ মন্ডল। তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন যে ‘আমার কোন মন্তব্য নেই এটিই আমার প্রতিক্রিয়া। ‘ অর্থাৎ তিনি এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চান না। জানা যায় যে, মনোজিৎ নিতান্ত একটা সম্পর্কে জড়িয়েছে, আর এই ঘটনাকে সামনে রেখেই বিবাহবিচ্ছেদের দিকে হাঁটতে চান বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়। এই বিষয়ে মনোজিৎ মন্ডল’ এই সময় ডিজিটাল’ কে বলেন যে ‘আমরা মিউচুয়াল ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছি এর বাইরে আমি আর কিছু বলতে চাই না।’

এদিকে ক্ষুব্দ শোভন পুত্র বলেন যে ‘দুর্গাপূজায় সিঁদুরখেলা হতেই পারে। দুর্গাপুজো হিন্দুদের সব থেকে বড় উৎসব। এই পুজোয় শরীয়ত মানা হয়না। কিন্তু নারীদের দুর্গাপুজোয় সর্বোচ্চ শক্তি হিসেবে আরাধনা করা হয়। শোভন বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেও স্নান করে কালী পুজো করেন। তাহলে তিনি কি করে নিজের স্ত্রীর অপমান করে অন্যের সিঁথিতে সিঁদুর পরতে পারেন। যেখানে তারা এখনও বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি তিনি কি করে এত বড় আইন ভঙ্গ করলেন।’

শোভন পুত্র ঋষি আরো বলেন যে ,’ইসলামে বলা হয়েছে আপনি যদি দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন তাহলে আপনার প্রথম স্ত্রী থেকে অনুমতি প্রয়োজন।কিন্তু এখানে তো তিনি বেলেল্লাপনা করে বেড়াচ্ছেন। সমাজের মানুষের কি প্রশ্ন তোলা উচিত নয় তার বিরুদ্ধে?’ অন্যদিকে ভাইরাল করা ছবির বিরুদ্ধে ক্ষুব্দ শোভন বন্দ্যোপাধ্যায়ের শশুর দুলাল দাস বলেন যে, ‘সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিলেই কি বিয়ে হয়ে যায়।তারা কি স্বামী স্ত্রী হয়ে গেল তাতে? এই ধরনের মেয়েদের আর কি হবে।’ এই ভাইরাল করা ছবিটিকে ঘিরে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি করেছে সারা নেট দুনিয়ায়।

আরও পড়ুন

Back to top button