কেতু গ্রহের অধিষ্ঠাত্রী দেবী “ধূমাবতী”

কেতু গ্রহের অধিষ্ঠাত্রী দেবী
কেতু গ্রহের অধিষ্ঠাত্রী দেবী "ধূমাবতী"

দশমহাবিদ্যার সপ্তম মহাবিদ্যা হলেন এই দেবী ধূমাবতী। দেবী সতী স্বামী নিন্দায় বিহুবলচিত্ত হয়ে দেহত্যাগ করেন। তখন তাঁর দেহ থেকে বিপুল ধুমরাশি নির্গত হয়েছিল, তা থেকে ধূমাবতী দেবীর উত্থান ঘটে। এই দেবী হলেন বিবর্না, চঞ্চলা, কৃষ্ণা ও দীর্ঘাঙ্গী।

তিনি মলিন বস্ত্র পরিহিতা, তাঁর কেশরাশিও বিবর্ণ এবং বিরলদন্তী। তিনি রুক্ষা ও বিধবা। তাঁর চোখগুলি রুক্ষ ও কালো। তিনি কম্পিত হস্তে সুর্প ধরে আছেন। তাঁর ওপর হস্তে রয়েছে বরমুদ্রা। তিনি বিশাল বদনা, কুটিল নয়না, কলহপ্রিয়, স্বভাব কুটিলা ও সর্বদা ক্ষুদা তৃষ্ণায় কাতর এবং তাঁর হস্ত দুইটি সদা কম্পমান।

তিনি হয়তো মোক্ষ দান করেন না, কিন্তু এই দেবী কিন্তু শত্রুবিনাশিনী। কেতু হৃদয়হীন গ্রহ হলেও কৈবল্যের কারণ এবং তাঁর অধিষ্ঠাত্রী দেবী হলেন এই দেবী ধূমাবতী। দেবী ধূমাবতী শত্রুনাশ করেন এবং রাহুগ্রহ স্থবির চিত্তে পাপনাশ করেন।

 

Get all the Latest Bengali News KolkataHunt.Com. catch out all Bangla Khobor here, follow us on Twitter and Facebook, Instagram