কি করলে শনিদেবের অশুভ প্রভাব থেকে মুক্তি পাবেন

কি করলে শনিদেবের অশুভ প্রভাব থেকে মুক্তি পাবেন
কি করলে শনিদেবের অশুভ প্রভাব থেকে মুক্তি পাবেন

শনিদেবকে আমরা সকলেই ভয় করি। শনিদেবের দৃষ্টি যদি কোনো মানুষের উপর বা কোনো পরিবারের ওপর পরে তাহলে তার ক্ষতি অনিবার্য। কেন শনিদেবের প্রভাব পড়লে ক্ষতি হয় তা আমাদের অনেকেরই অজানা। পুরান অনুযায়ী শনি হলো হিন্দুদের একজন দেবতা যিনি সূর্যদেব ও তার পত্নী ছায়াদেবীর পুএ। এজন্য তাকে ছায়াপুএ বলা হয়।

শনিদেব মৃত্যু ও ন্যায় বিচারের দেবতা যমরাজ বা ধর্মরাজের জৈষ্ঠ ভ্রাতা। পুরানে কথিত আছে একদিন শনির ধ্যনের সময় তার স্ত্রী সুন্দর রুপে তার কাছে কামতৃপ্তি পার্থনা করেন। কিন্তু শনিদেব সেদিকে খেয়ার না করায় তার স্ত্রী অতৃপ্তকাম শনিকে অভিশাপ দেন আমার দিকে তুমি ফিরেও দেখলে না, তুমি যার দিকে তাকাবে সেই ভশ্ম হয়ে যায়।

মধ্যযুগীয় গন্থ মতে শনি একজন অশুভ দেবতা হিসাবে বিবেচিত হন। শনি গ্রহের ফাড়া কাটাতে প্রতি শনিবার সন্ধ্যায় শনিব্রত পালন করার রীতি রয়েছে। নির্জলা উপোষ রেখে এই ব্রত পালন করলে ফল পাওয়া যায়। নীল রঙের ঘট, পুষ্প, বস্ত্র, কালো তিল, দুগ্ধ, গঙ্গাজল এসব আবশ্যিক ব্রত পালনে।

শনিদেবের অশুভ প্রকোপ থেকে বাঁচতে আমরা সকলেই পাথর বা শেকড় ধারণ করে থাকি। তবে কতগুলি প্রতিকার আছে সেগুলো মেনে চললে শনিদেবের অশুভ প্রকোপ থেকে আমরা নিস্তার পেতে পারি।

১. প্রতি শনিবার অশ্বথ গাছে জল দিলে শনিদেব তার প্রতি প্রসন্ন হয়।

২.প্রতিদিন শনি চালিশা পাঠ করলে ভক্তি সহকারে শনিদেবের উপাসনা করলে তিনি সুখ শান্তি প্রদান করে থাকেন।

৩. ঘোড়ার খুরের আংটি শনিবারের স্নানের পর প্রথমে দুধ দিয়ে তারপর গঙ্গা জল দিয়ে ধুয়ে শনিদেবকে উদ্দেশ্য করে প্রণাম করে ডান হাতের মধ্যমায় ধারণ করলে শনিদেব প্রসন্ন হন।

৪. আটা না চেলে সেই আটা দিয়ে রুটি করে একটি গরুকে ও একটি কুকুরকে খাওয়াতে হবে। প্রতিদিন পালন করলে শনির প্রকোপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৫. গাইগরুকে কালো তিল ও গুড় প্রতি শনিবার খাওয়ালে শনিদেব ও মা ভগবতী দেবী উভয় প্রসন্ন হন।

৬. প্রতি শনিবার অশ্বথ গাছ বা বটগাছের নীচে সরষেরতেলের প্রদীপ জ্বালিয়ে রেখে গাছের চারিদিকে কাচা সুপারি প্যাঁচাতে হবে। পরে গাছকে প্রণাম করলে শনিদেবের রোষ দৃষ্টি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৭. প্রতি শনিবার কুকুরকে খাওয়ালে ও নিজে নিরামিষ খেলে শনিদেবের অশুভ দূর হয়।

৮. প্রতিষ্ঠিত শনি মন্দিরে শনিবার মাটির প্রদীপে সর্ষের তেল দিয়ে তুলোর সলতে জ্বালিয়ে আরতির পর সেই তেল প্রতিদিন গায়ে মাখলে শনিদেব প্রসন্ন হন।

৯. শনিদেবের কুপ্রভাব থেকে নিশ্চিত মুক্ত হতে গেলে প্রতি শনিবার নারকেল তেলের মধ্যে কপূর দিয়ে মাথায় লাগালে ফল পাওয়া যায়।

১০. বাড়ির সদর দরজায় ঘোড়ার খুর, হনুমানজির ছবি লাগালে শনিদেবের কুপ্রভাব থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

Get all the Latest Bengali News KolkataHunt.Com. catch out all Bangla Khobor here, follow us on Twitter and Facebook, Instagram