ভেস্তে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স এর ম্যাচ, গোপন সূত্রে খবর প্যাট কামিন্স কোভিড পজিটিভ

ভেস্তে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স এর ম্যাচ, গোপন সূত্রে খবর প্যাট কামিন্স কোভিড পজিটিভ

কলকাতা হান্ট ডেস্কঃ বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই ভারতে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ জোরকদমে প্রভাব বিস্তার করেছে।বেশির ভাগ জায়গা থেকেই স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর অভাবে মানুষের মৃত্যুর সংবাদ সামনে আসছে। মহারাষ্ট্র দিল্লি, পাঞ্জাব, ছত্রিশগড়, মধ্যপ্রদেশ প্রভৃতি রাজ্যগুলির অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয়।কারন এই সব জায়গাতে ভ্যাকসিন এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য সুবিধা প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছে বললেই চলে। হাসপাতালগুলিতে নজর রাখলেই দেখা যাচ্ছে শয্যার আঁকাল। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হচ্ছে মানুষের। করোনাভাইরাস এর এই দ্বিতীয় ঢেউ যে এত ভয়াবহ রূপ ধারণ করবে তা হয়তো কেউ বুঝে উঠতে পারেননি। তাই বলিউড অভিনেতা থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সকলেই এই ভাইরাসের কবলে পড়ে গিয়েছেন। এবারে ভাইরাস নিজের তান্ডব শুরু করেছে আইপিএল এর মাধ্যমে। যার ফলস্বরুপ রীতিমতো ভেস্তে যেতে চলেছে আজকের কলকাতা নাইট রাইডার্স এর ম্যাচ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,অস্ট্রেলিয়ান সংবাদ মাধ্যম ফক্স স্পোর্টসে প্রকাশিত খবর অনুযায়ি কলকাতা নাইট রাইডার্সের মধ্যে থেকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্রিকেটার মারাত্মক এই খবর জানিয়েছেন যে প্যাট কামিন্স কোভিড পজিটিভ। জানিয়ে রাখি বিগত কয়েক দিন ধরেই নাইটের ক্রিকেটারদের অসুস্থ থাকার খবর সামনে আসছিল। জানা গিয়েছিল তাদের মধ্যে অনেকেই নিজেদেরকে আইসোলেশনে রেখেছেন। তবে তার কারণ হিসেবে যে ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে তা এখনো পর্যন্ত নির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি।

উল্লেখ্য কলকাতা নাইট রাইডার্স এর দলে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান তারকা প্যাট কামিন্স , ইংল্যান্ডের ইয়ন মর্গ্যান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের দাপুটে ব্যাটসম্যান আন্দ্রে রাসেল ও অলরাউন্ডার সুনীল নারিন৷ তারকা রয়েছে শুভমান গিল ও দীনেশ কার্তিক ৷ আইপিএলের চলতি মরসুমে নাইটদের ফল যে দিনকে দিন খারাপ হয়ে চলেছে তাতে সন্দেহ নেই। পরপর প্রায় ৪ টি ম্যাচে হারের সম্মুখীন হয়েছে তারা। আজ রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের মুখোমুখি হতে চলেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। কিন্তু সেই ম্যাচ নিয়েও জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে ইতিমধ্যেই।Fox Sports এর তরফ থেকে প্রকাশিত এক খবরে জানা গিয়েছে এই ম্যাচটি বাতিল হয়ে গিয়েছে।যদিও এখনো পর্যন্ত নির্ধারিত ভাবে কোন খবর জানানো হয়নি আইপিএলের কর্মকর্তাদের তরফে। জানা গিয়েছে ইতিমধ্যেই আইপিএল এর সাথে যুক্ত ভারত থেকে ৪০ জন অস্ট্রেলিয়ান ফিরে গেছেন৷

কিন্তু তাতেও বেশ প্রভাব পড়তে দেখা যাচ্ছে না খেলার ওপর। গতবছর করোনা ভাইরাসের তাণ্ডবের ফলে আইপিএল শুরু হতে অনেকটা দেরি হলেও চলতি সিজনে তা নির্ধারিত সময়েই এপ্রিল মাসের ৯ তারিখে শুরু করা হয়েছিল। প্রথমে সামান্য জটিলতা থাকলেও পরে বিসিসিআইয়ের বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী জানান যাই হয়ে যাক না কেন আইপিএল নির্দিষ্ট সময়সূচী অনুসারেই অনুষ্ঠিত হবে। এমনকি তিনি আইপিএলে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মানসিক বলবৃদ্ধির জন্য অনেক চেষ্টা করেছিলেন।সৌরভের মতে বিদেশি ক্রিকেটারদের তুলনায় ভারতীয়দের মনোবল অনেক বেশি শক্তিশালী হওয়ায় সহজেই ভাইরাসের সাথে লড়াই করতে পারবেন তারা। যদিও তার এই মতামত অনেকেই অস্বীকার করেছিলেন। বিরাট কোহলির মতো ক্রিকেটাররা রীতিমতো প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছিলেন,এভাবে ভাইরাসের মত শোচনীয় অবস্থায় খেলতে যাওয়ার দরুন হোটেল থেকে ময়দান এবং ময়দান থেকে হোটেলের বাইরে না বের হতে পেরে অবসাদে ভুগছিলেন তারা।যদিও আইপিএল শুরু হতে দেখা যায় সকলেই নির্দিষ্ট ফরম এর মাধ্যমে খেলা শুরু করেন।