ভারতে অনেকেই এখন কন্যা সন্তান দত্তক নিচ্ছে, জানালো সিএআরএ র রিপোর্ট

Many in India are now adopting daughters, CARA reports
Many in India are now adopting daughters, CARA reports

বাংলা খবর ডেস্ক: এই ২০২০ সালে এসেও এমন অনেকে আছে যারা কন্যা সন্তান নিতে চাইনা। চাই যেন পুত্র সন্তান হোক। কন্যা সন্তান হওয়া নিয়ে বহু ধরণের খবর দেখা যায়। তবে এবার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলো চাইল্ড আ্যডপশন রিসোর্স অথরিটি। তাদের দেওয়া এক রিপোর্টে দেখা গেছে ভারতে দত্তক নেওয়া কন্যা সন্তানের চাহিদা বাড়ছে ধীরে ধীরে।

আরও পড়ুন – ভারতে করোনা টিকা করনের প্রস্তুতি শুরু, এসেমেসের মাধ্যমে তথ্য জানিয়ে দেবে সরকার

সিএআরএ র দেওয়া রিপোর্টে দেখা গেছে, গত ১২ মাসে গোটা দেশে দত্তক নেওয়া শিশুর সংখ্যা হলো তিন হাজার পাঁচশো একত্রিশ জন। যার মধ্যে মাত্র একহাজার চারশো সত্তর জন ছেলে আর বাদবাকি সব মেয়ে। কন্যা র সংখ্যা টা ছিল দুই হাজার একষট্টি জন।

আরও পড়ুন – শিয়ালদা ও হাওড়া লাইনে কত ট্রেন চলবে? জেনে নিন সম্পূর্ণ

তারা আরো বলেন, যে আমরা কেউ দত্তক নিতে এলে তিনটে উপায় দি ছেলে,মেয়ে বা সংস্থার বেছে দেওয়া কেউ। কিন্তু তার পরেও দত্তকে মেয়েদের হার বেশী থাকায় মনে করা হচ্ছে তাহলে কি সমাজে মেয়েদের গ্রহণযোগ্যতা বাড়তে শুরু করেছে। কিন্তু কেউ কেউ মনে করেন এই কন্যা সন্তান বেশী দত্তক নেওয়ার কারণ হলো সংস্থায় ছেলের থেকে মেয়ের সংখ্যায় বেশি থাকে। অনেকে কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার পর তাকে ফেলে দেয়। ফলে স্বভাবতই সংস্থা গুলিতে মেয়েদের সংখ্যা বেশী থাকাতেই দত্তক নেওয়া মেয়ের সংখ্যাও বেশি।

আরও পড়ুন – বাড়ছে শীতের দাপট, হতে পারে বৃষ্টি, জানাচ্ছে হাওয়া অফিস? জেনে নিন

সিএআরএ বলছেন, বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই অভিভাবক রা পিতৃত্ব/ মাতৃত্ব অনুভব করার জন্য দুই বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের দত্তক নেয়। তবে একটি অসহায় শিশুকে সুন্দর জীবন দেওয়ার আদর্শ অনেক ক্ষেত্রেই কাজ করেনা। তাই দেখা যায় দত্তক নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা যুক্ত শিশু প্রায় দেখায় যায়না। সিএআরএ জানিয়েছে, গত বছরে মহারাষ্ট্র থেকে দত্তক নেওয়া মানুষ সব থেকে বেশি। তার পরেই কর্ণাটক, তামিলনাড়ু প্রভৃতি রাজ্য গুলি আছে।