লক্ষ্মী পুজোর দিন এই নিয়মগুলি মেনে চললে সংসারে আসতে পারে সমৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিবেদন: লক্ষ্মীপূজো আগামী সপ্তাহেই। শ্রীবিষ্ণুর স্ত্রী শ্রীলক্ষ্মী সুখ শান্তি সমৃদ্ধির দেবী। কোজাগরী পূর্ণিমা তিথিতে তাঁর বন্দনা করা হয় তাঁকে অচঞ্চল রাখার জন্য। দীপাবলীর দিন বিকালে দীপান্বিতা লক্ষ্মী পূজার প্রচলন সারা দেশে থাকলেও কোজাগরী লক্ষ্মী পূজা হয় ঘরে ঘরে। যেভাবেই পূজা হোক না কেন, এই নিয়মগুলো মেনে চলুন লক্ষী পূজোর দিন।

# এড়িয়ে চলুন আমিষ পদ।
# পরিষ্কার জল দিয়ে মঙ্গলঘট পূর্ণ করুন।
# নারকেল রাখুন মঙ্গলঘটের উপর।

# মঙ্গলঘট লাল কাপড় দিয়ে ঢেকে লাল সুতো দিয়ে বেঁধে রাখুন।
# ঘটে সমৃদ্ধির প্রতীক স্বস্তিক চিহ্ন আঁকুন।
# চাল ও মুদ্রা রাখুন ঘটের জলের মধ্যে।

# নারায়ন পূজাও করুন মা লক্ষ্মীর পূজার সঙ্গে সঙ্গে।
# এই দিন কোন বাচ্চা মেয়েকে লক্ষ্মী হিসেবে কল্পনা করে তার পছন্দের পাঁচটি জিনিস উপহার দিন তাকে।
# গঙ্গাস্নানে পুন্যলাভ হয় লক্ষী পূজোর দিন।

# লক্ষ্মী পুজোর দিন অতি আবশ্যক লক্ষ্মীর পাঁচালী পড়া এবং ১০৮ বার মা লক্ষ্মীর নাম স্মরণ করা।
# পূণ্য অর্জন হয় লক্ষ্মীপূজোয় দান-ধ্যানে।
# বাড়ির সদর দরজায় মায়ের পদ চিহ্ন আঁকুন।
# পাঁচটি কড়ি দেবীর মূর্তি সামনে রেখে পুজো করুন এবং তা আলমারিতে রেখে দিন।

এই ভুলগুলি লক্ষ্মী পুজোর দিন কোনমতেই করা যাবে না-

# কোনমতেই সাদা রঙের ফুল দিয়ে পুজো করা যাবেনা মা লক্ষ্মী কে।
# পুরাণে কথিত আছে তুলসির সঙ্গে শালগ্রাম শিলার বিবাহ হয়। শালগ্রাম গ্রাম শিলা নারায়ণের প্রতিভূ এবং যেহেতু শ্রীলক্ষ্মীও বিষ্ণুপত্নী সেজন্য তুলসী পুজোর ব্যবহার হয় না লক্ষ্মী পূজায়।
# যেমন সাদা ফুল দিয়ে লক্ষ্মী পূজা হয়না তেমন লক্ষ্মী পূজায় সাদা বা কালো কাপড় পাতার নিয়ম নেই আসনে। এতে মা লক্ষ্মী অসন্তুষ্ট হন।
# অন্য কাউকে দিতে নেই লক্ষ্মী পূজায় তোলা চাল।

# পুজোর পর প্রসাদ অর্পণ করতে হয় ঠাকুর ঘরের দক্ষিণমুখে। না বলতে নেই লক্ষ্মী পূজার প্রসাদে, মুখে তুলতে হয় অল্প হলেও।
# লক্ষ্মী পূজার ঢাক-ঢোল-কাঁসর- ঘণ্টা বাজাতে নেই। মা লক্ষ্মী অতিরিক্ত শব্দ পছন্দ করেন না। এতে তিনি অসন্তুষ্ট হন।
# কোনভাবেই কালো পোশাক পরা যাবে না লক্ষ্মী পুজোর সময়।

আরও পড়ুন

Back to top button