‘আজাদ হিন্দ ফৌজ সরকারের প্রধানমন্ত্রী নেতাজী’ কংগ্রেসের সামনে বললেন মোদি

বিরোধীরা ক্রমাগত নরেন্দ্র মোদী সরকারের সময়ে দেশের গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। মোদীও ক্ষুদ্র কবিতার মাধ্যমে বিরোধীদের প্রশ্নের জবাব দিলেন। ভারতের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রকাশ করার জন্য তিনি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর উক্তি ব্যবহার করলেন।

এই সোমবার রাজসভাতে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণের ওপর ধন্যবাদ জানানোর সময় গণতান্ত্রিক ও জাতীয়তাবাদ পরিবেশের মতো বিষয়ে মুখ খোলেন নরেন্দ্র মোদি।তিনি এও বুঝাতে চেষ্টা করেন যে তার আমলের গণতান্ত্রিক পরিবেশ ভালো আছে। এরপর তিনি নেতাজির একটি তুলে ধরেন।

মোদী বলেন যে, “আমাদের গণতন্ত্র কোনভাবেই পাশ্চাত্য প্রতিষ্ঠান নয় এটা একটা মানবিক প্রতিষ্ঠান ভারত ইতিহাসে যে গণতান্ত্রিক সংস্থা ছিল, সেরকম প্রচুর উদাহরণ আছে, প্রাচীন ভারতের গণতন্ত্রের ৮১টি উল্লেখ পেয়েছি। চারিদিক থেকে যখন ভারতের জাতীয়তাবাদের উপর হামলা করা হচ্ছে সে বিষয়ে দেশবাসীকে সতর্ক করা জরুরি। ভারতে জাতীয়তাবাদ- না সংকীর্ণ, না-তো স্বার্থান্বেষী, না-তো আক্রমনাত্মক, এটা সত্যম-শিভম-সুন্দরম মূল্যবোধের দ্বারা অনুপ্রাণিত”।

এবং তিনি এর সঙ্গে যোগ করেন, ‘এটা আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রথম সরকারের প্রথম প্রধানমন্ত্রী নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর উক্তি’। অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে মোদী জানান, দুর্ভাগ্যজনকভাবে নেতাজির আদর্শ, বিচার ও ভাবনা ভুলে যাওয়া হচ্ছে।

রাজনৈতিক মহল থেকে জানানো হয় যে মোদী সবকিছু জেনে বুঝেই নেতাজির এই উক্তিটি ব্যবহার করেছেন। এবং একই সাথে নেতাজিকে আজাদ হিন্দ ফৌজ-এর প্রথম সরকারের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে উল্লেখ করে কংগ্রেসকেই পাল্টা আক্রমণ করতে চেয়েছেন তিনি।

Get all the Latest Bengali News KolkataHunt.Com. catch out all Bangla Khobor here, follow us on Twitter and Facebook, Instagram