মাথায় হাত দিয়েই জেনে যাচ্ছেন মনের কথা, হিমালয় থেকে নেমে আসা ১৮ ইঞ্চির সাধু

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনার সতর্কবিধি মেনেই কয়েক সপ্তাহ ধরে হরিদ্বারে কুম্ভ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পূণ্যার্থীদের আশীর্বাদ দেওয়ার জন্য প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও বিভিন্ন জায়গা থেকে সাধু সন্ন্যাসীরা উপস্থিত হয়েছেন এই মেলাতে। কিন্তু মেলাতে সবার নজর কেড়েছে ১৮ ইঞ্চি উচ্চতার এক সাধু বাবা।

কয়েক শতাব্দী আগে শঙ্করাচার্যের হাত ধরে যে নাগা সন্ন্যাসীর উদ্ভব হয়েছিল, প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও মেলাতে উপস্থিত হয়েছে সেইসব নাগা সন্ন্যাসীরা। এইসব সন্ন্যাসীরা সংসার ধর্ম ছেড়ে গায়ে ছাই-ভস্ম মেখে সাধনা শুরু করে। অনেকেরই ধারণা আছে নাঙ্গা সন্ন্যাসীরা হিমালয় পর্বতের উপরে বসবাস করে, এদের অলৌকিক ক্ষমতা আছে, ইত্যাদি। এই কুম্ভ মেলায় নাগা সন্নাসীদের দর্শন পাওয়ার জন্য প্রচুর দর্শনার্থী উপস্থিত হন।

এবারের কোন মেলায় সবচেয়ে নজরকাড়া সাধুবাবা হলেন নারায়ণ নন্দ গিরি মহারাজ, যার উচ্চতা মাত্র ১৮ ইঞ্চি। এই সাধুবাবার জুতোর মালা গলায় ঝুলানো অবস্থায় একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে গিয়েছে এই সাধু বাবা মাথায় হাত দিয়েই মনের কথা জেনে যাচ্ছেন। এমনকি যার মাথায় হাত দিচ্ছেন তিনি শারীরিক এবং মানসিকভাবে অনেকটা সুস্থ দেখাচ্ছেন। তবে এই ভিডিওর সত্যতা নিয়ে তৈরি হয়েছে উদ্বেগ।