সামনের মাসেই আসতে চলেছে প্রথম করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক ভি’

The first corona vaccine Sputnik V is coming next month
ছবিঃ গুগল
Advertisement

রাশিয়া দ্বারা তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক ভি’ এর তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা সবে শুরু হয়েছে এবং সেখানকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছে সেপ্টেম্বরের মধ্যেই বাজারে নামতে চলেছে তাদের এই করোনা টিকা। পরীক্ষার ফলাফল না জানার আগেই তারা কেন এমন মন্তব্য করলেন এই নিয়ে ইতিমধ্যে বেশ কিছু প্রশ্নও উঠেছে।

মস্কোর একটি সংবাদপত্রের মাধ্যমে জানা যায় জানায় যে এই বড় মাপের প্রতিষেধক টি সেপ্টেম্বরেই সরবরাহ শুরু হয়ে যাবে কিন্তু তা শুধু রাশিয়াতে সীমাবদ্ধ থাকবে।

মস্কের ওই সংবাদপত্রটি অনুযায়ী সেখানকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছে যেমন এই ভ্যাকসিনটির উৎপাদন শুরু হয়েছে তেমনই তার কার্যকারিতার ব্যাপারেও পর্যবেক্ষণ চলছে। বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করার কিছুদিন পর থেকে অর্থাৎ অক্টোবর নাগাদ এই অ্যান্টিডোটটির প্রচার নিয়ে অনেক চিন্তা ভাবনা করে রেখেছেন রাশিয়ার সরকার।

আইআইটি খড়গপুর ব্যথাহীন ইনজেকশন আবিষ্কার করেছে, COVID-19 ভ্যাকসিনের সাহায্য করতে পারে
আইআইটি খড়গপুর মাইক্রোনেডল

সেপ্টেম্বর থেকে, স্বেচ্ছাসেবীর ভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রথম মাধ্যম হবেন চিকিত্সক এবং শিক্ষকরা। কর্মকর্তারা বলেছেন – এটি রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনের সমর্থন এবং এই পর্যায়ে তারা সাফল্যের মুখ দেখতে পেলে দেশের বাকি অংশের মানুষের মধ্যে তা প্রয়োগ করবে। রাশিয়ান প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছে যে সেনাবাহিনী কর্মীদের একটি করে ডোজ বাধ্যতামূলক। এরমধ্যেই রাশিয়াকে প্রায় ২০ টি দেশ প্রায় ১ বিলিয়ন ডজের জন্য আবেদন জানিয়েছে।

কিন্তু প্রধান ফলাফল বেরোনোর আগেই এই ঘোষণা করার ফলে বিতর্কের মুখে পড়েছে রাশিয়া। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষ হওয়ার আগেই কেন তারা তাড়াহুড়ো করছেন? এই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে প্রত্যেক মহল থেকে। তাড়াতাড়ি আসার থেকে বরং সেটা কতটা কার্যকরী এবং আদৌ কি সেটা ক্ষতিকর না! তা জেনে নেওয়াটা বেশি প্রয়োজনীয় বলে মনে করছে মানুষ। রাশিয়ার দাবি যে, তাদের পরীক্ষা সফল হলে তবেই তারা বাজারে আনবেন এই করোনা ভ্যাকসিনটি।

 

Advertisement