বলিউডে মাদক চক্রে জড়িয়েছেন এই ১০ অভিনেতা-অভিনেত্রী

বলিউডে মাদক চক্রে জড়িয়েছেন এই ১০ অভিনেতা-অভিনেত্রী
ছবিঃ গুগল

সুশান্ত সিং রাজপুত এর মৃত্যুর পর বলিউড ইন্ডাস্ট্রি একেবারে তছনছ হওয়ার পথে গ্রেফতার করা হল রিহা চক্রবর্তী কে মাদক কাণ্ডে জড়িত হওয়ার জন্য তাকে গ্রেফতার করা হলো তিনি সঙ্গে 18 জনের নাম দিয়েছেন যারা মাদক সেবন করেন গ্রেপ্তার করা হয়েছে রিহা চক্রবর্তীর ভাই কেউ নাম জড়িয়েছে শিল্পা শেট্টি রণবীর কাপুরের মত পরিবারদের

তবে এ খবর নতুন নয় আগে অনেকবার এ খবর পাওয়া গিয়েছে যে বলিউডের মতো দুনিয়ায় যে সমস্ত মানুষদের আমরা অভিনেতা অভিনেত্রী হিসেবে চিনি তারা মাদক আসক্ত আবার অনেকে জেলে গিয়েছেন আবার অনেকে নেশা করার কথা জনসমক্ষে স্বীকার করেন

রণবীর কপূর :  বলিউড জগতের সব থেকে নামিদামি পরিবারের একজন সন্তান রণবীর কাপুর ঋষি কাপুর এর পুত্র তিনি তিনি ছোটবেলা থেকেই মাদক সেবন করতেন তার জন্য তাকে একবার ই হাভে পাঠানো হয়েছিল।

সুজান খান :  হৃত্বিক ও সুজানের বিচ্ছেদের পর সুজান খান নেশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি প্রথম থেকেই ড্রাগ আসক্ত ছিলেন সেই খবর যখন জানতে পারে না ঋত্বিক তখন তাদের মধ্যে সম্পর্ক বিচ্ছেদ হয়ে যায় এবং সম্পর্ক বিচ্ছেদের পর তিনি আরও বেশি করে ড্রাগনিতে শুরু করেন

সঞ্জয় দত্ত :  আমরা সঞ্জয় দত্তের জীবনী সঞ্জু সিনেমা থেকে কিভাবে মাদক দ্রব্য এবং চাঁদনী তালিকা দেখানো হয়েছে সিনেমাতে তিনি ছোটবেলা থেকে আসক্ত হয়ে পড়েন এই সমস্ত জিনিসের উপর সম্প্রতিকালে সঞ্জু বাবা অসুস্থ হয়ে উঠেছে ক্যান্সার ধরা পড়েছে তার। তার শরীর খারাপের জন্য এই মাদকই দায়ী বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

হানি সিংহ :  জনপ্রিয় রাপার হানি সিং এই সমস্ত মাদক দ্রব্যের ভীষণভাবে আসত্ত ছিলেন । তিন গাজা , মদ কোকেন থেকে শুরু করে সমস্ত রকমের মাদকদ্রব্য সেবন করতেন । এই নিয়ে বহুবার রিহ্যাবে গিয়েছেন তিনি।

সূর্য পাঞ্চোলি : প্রেমিকার জিয়া খানের মৃত্যুর পরে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন সুরজ পাঞ্চোলি। তারপর থেকে তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন।

গৌরী খান : শাহরুখ খানের স্ত্রী গৌরী খান একবার মাদক রাখার জন্য ধরা পড়েছিলেন। বার্লিন বিমানবন্দরে ধরা পড়েছিলেন সঙ্গে মারিজুয়ানা ছিল বলে।

মনীষা কৈরালা : নব্বই দশকের জনপ্রিয় নায়িকা দের মধ্যে একজন ছিলেন মনীষা । তিনি প্রচুর পরিমানে মাদক সেবন করতেন। তবে ক্যান্সার ধরা পড়ায় তিনি এই অভ্যাস ত্যাগ করেছিলেন।

রবিনা টন্ডন : অক্ষয় কুমারের সাথে তার সম্পর্ক ছিল বহুদিন ধরে । বিয়ের আগেই তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যান । এবিং যখন তাদের বিচ্ছেদ ঘটে তারপর অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন রবীনা ট্যান্ডন।  ফলে তিনি গাঁজা ও মাদক নিতে শুরু করেন।

কপিল শর্মা : ক্যারিয়ার যখন কাজ পাচ্ছিলেন না তখন তিনি মাদক আসত্ত হয়ে ওঠেন।

বিজয় রাজ : দুবাই বিমানবন্দরে গ্রেফতার হয়েছিলেন বিজয় রাজ। তার কারণ তার সঙ্গে গাঁজা পাওয়া গিয়েছিল।

এছাড়াও আছেন অনেক অভিনেতা অভিনেত্রী …