মর্মান্তিক ঘটনার বহিঃপ্রকাশ, স্তন্যপান করার জন্য মৃত মায়ের পাশে ক্ষুধার্ত শিশুর কান্না

Tragedy, the cry of a hungry baby next to a dead mother to suckle
Tragedy, the cry of a hungry baby next to a dead mother to suckle

কলকাতা হান্ট ডেস্কঃ মা আমাদের এই পৃথিবীর সবথেকে বড় উপহার।হয়তো এই উপহারটি না থাকলে আমরা কোনোদিন এই পৃথিবীতে জন্ম নিতে পারতাম না। পৃথিবীতে মায়ের জায়গা কখনো কেউ নিতে পারেনা। মায়ের ভালোবাসা আমাদের জন্য সব থেকে বড় আবেগ। যেই মানুষের ভাগ্যে এই ভালোবাসা নেই তার থেকে অসহায় এই পৃথিবীতে বোধহয় কেউ হয় না।কোন ব্যক্তি মাতৃহারা হলে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় তা ধারণারও বাইরে। কিন্তু অনেক সময় ভাগ্যের ফেরে এই পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় আমাদের। যদি আপনাদের হাতে দু মিনিট সময় থাকে তাহলে এই গল্পটি পড়ুন। যদিও এটি কোন গল্প নয় সম্পূর্ণ বাস্তব ঘটনা।সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি পড়ার পর আপনার চোখে নিঃসন্দেহে জল আসতে বাধ্য হবে।

আরও পড়ুনঃ ত্বকের ব্রণ দূর করার ঘরোয়া উপায়

সম্প্রতি এই ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমত ঝড় তুলে দিয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত ঘটনাস্থল জানা যায়নি। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি অনুযায়ী,রেললাইনের পাশে এক মৃত মায়ের দেহকে আঁকড়ে ধরে ক্রমাগত এক শিশু স্তন্যপান করার জন্য কান্না চালিয়ে যাচ্ছে। প্রথমে পথচলতি মানুষজন কিছু বুঝতে পারেননি। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ ধরে এই ঘটনা ঘটতে থাকায় তাদের সন্দেহ হয়। এরপর সামনা সামনি যাওয়ার পর জানা যায় ঐ মহিলাটি মারা গিয়েছেন। যদিও খুন বা আত্মহত্যা তা এখনো পর্যন্ত প্রমাণিত হয়নি। কিন্তু এভাবে এক অবুঝ শিশুর ক্ষুধার্ত হওয়ার কারণে মৃত মায়ের কাছে স্তন্যপানের ভিক্ষা চাওয়া স্বাভাবিকভাবেই সকলের হৃদয় ছুঁয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ আপনি কি জানেন একটুকরো আমলকি আপনার শরীরের ১০০ টা রোগের মহৌষধ হতে পারে! জেনে নিন আমলকির উপকারিতা

মনু বাল্মিকী নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আমরা দূর থেকে ওই মহিলার মরদেহ দেখার পরপরই পুলিশকে খবর দিই। কিন্তু যেই অবস্থায় শিশুটি ছিল তা দেখার পর আমাদের সকলের চোখে জল এসে গিয়েছে। নন্দরাম নামে এক পুলিশের কর্মকর্তার কথায়, শিশুটি দীর্ঘক্ষন তার মায়ের সাড়া পাওয়ার জন্য কেঁদে উঠছিল। ক্ষুধার্ত থাকার কারণে বারংবার মৃত মাকে ডেকে স্তন্যপান করার চেষ্টা চালাচ্ছিল। কিন্তু কোনভাবেই সে সফল হয়নি।সন্তানকে ছেড়ে অনন্তের পথে পাড়ি দেওয়া ওই মহিলা কোনমতেই আর ফিরে তাকাননি।আপাতত শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মহিলাটির দেহকে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অপরদিকে ওই শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য স্থানীয় এক হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। মুহূর্তের মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই চোখে জল এসে গিয়েছে মানুষের। যেখানে অনেক সন্তানেরা নিজের বাবা মায়েদের বৃদ্ধাশ্রমে রেখে আসেন,সেই জায়গায় একজন শিশুর তার মৃত মায়ের কাছ থেকে স্তন্যপান করতে চাওয়া অত্যন্ত বেদনাদায়ক তা স্পষ্ট।