বাড়িতে শঙ্খ থাকলে ভুলেও এই কাজ গুলি করবেন না!

benifits of sankha
benifits of sankha

হিন্দু ধর্মে শঙ্খের গুরুত্ব অপরিসীম। শাঁখে ফুঁ দিলে যে তরঙ্গের সৃষ্টি হয় তা অশুভ শক্তিকে দূর করে বলে প্রচলিত ধর্মীয় বিশ্বাস।এই শঙ্খ হিন্দু ধর্মের সকল পূজার জন্য গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে বিবেচিত।

বৈদিক মতে দু’ধরনের শাঁখ পাওয়া যায়। একটি বাজানোর জন্য এবং অন্যটি পুজোর কাজে ব্যবহার হয়। গৃহস্থবাড়িতে দিনে দুবার শাঁখ বাজাতে হয় (সকালে ও সন্ধ্যায়) শঙ্খ বাজানোর ফলে গৃহে সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়, অশুভ শক্তির প্রভাব কমে।

sankha
sankha

১. প্রতিদিন সকালে ঠাকুর ঘরের দরজা খোলার আগে শঙ্খ বাজিয়ে তবেই খোলা উচিত এতে দেবতাদের আশীর্বাদ প্রাপ্ত হয়।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বকর্মার কিছু অমর সৃষ্টি যা আজও আমদের আকর্ষিত করে

২. দুই প্রকারের শাঁখ হয়। পুরুষ এবং মহিলা। পুরুষ শঙ্খ পূজার্চনার কাজে লাগে, কিন্তু মহিলা শঙ্খ গৃহস্তে রাখা উচিত নয় । মহিলা শঙ্খ গৃহস্থের রাখলে অশুভ এবং নেগেটিভ শক্তি বৃদ্ধি পায়।

SANKHA BAJANO
SANKHA

৩. পূজোর কাজে দু ধরনের শঙ্খ ব্যবহৃত হয়। একটি বাজানো হয় এবং অন্যটি দিয়ে ঠাকুরকে জল দেওয়া হয় । যে শাঁখ বাজানো হয় তার মধ্যে জল দিয়ে পুজোর কাজে ব্যবহার করা যাবে না কারণ আমরা যখন মুখ দিয়ে বাজাই তখন তা মুখের সংস্পর্শে শুদ্ধ থাকেনা। এই ধরনের শাঁখ হলুদ কাপড়ের উপরে রাখা উচিত এবং জলশঙ্খ নিয়মিত গঙ্গা জল দিয়ে পরিষ্কার করে সাদা কাপড়ে মুড়ে রাখা উচিত।

আরও পড়ুনঃ নিষ্ঠাভরে নিয়ম মেনে করুন গজানন গণেশের পূজা, সংসার ভরে উঠবে ধনরত্ন এবং শ্রীবৃদ্ধিতে

৪. যে শাঁখকে বাজানো হয় তার থেকে পুজোর কাজে ব্যবহৃত শাঁখটিকে কিছুটা উপরে স্থাপন করতে হবে।

SANKHA
SANKHA

৫.শাঁখ কখনোই শিবলিঙ্গের চেয়ে উঁচুতে রাখবেন না এবং পুজো অর্চনার সময় শাঁখের সঙ্গে শিবলিঙ্গের যেন স্পর্শ না হয়। এবং খেয়াল রাখবেন শাঁখের জল‌ কোনো ভাবে যেন শিব লিঙ্গের উপর না পরে।

আরও পড়ুনঃ সংসারের হারানো সুখ সমৃদ্ধি ফিরে আসে সূর্য প্রনাম করলে,জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে

৬.শঙ্খের মুখ দেবতাদের দিকে রাখবেন। এর ফলে পজেটিভ শক্তি বৃদ্ধি পায়। ভাগ্য ফিরে আসে।