গাছের পাতা দিয়ে বাঁশি বাজিয়ে অসাধারণ সুর, নেটদুনিয়ায় ভাইরাল দরিদ্র ব্যক্তির ভিডিও

কলকাতা হান্ট ডেস্কঃ এই পৃথিবীর নানা প্রান্তে কতো মানুষ রয়েছেন আর তাদের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে নানা প্রতিভা। এইসব প্রতিভা হয়তো সুযোগ পেলে একদিন সম্মানিত হতো। তবে সব প্রতিভা বিকাশ লাভ করতে পারে না। তার জন্য প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে অর্থ বা ভালো সুযোগ। হয়তো কখনো ভালো সুযোগের অভাবে প্রতিভার বিকাশ ব্যহত হয় কিংবা কখনো দারিদ্র্যতার অভাবে সুপ্তই থেকে যায় প্রতিভাগুলি।

আরও খবরঃ- সিদ্ধার্থকে ছেড়ে ভাশুর সোমের সাথে চুটিয়ে প্রেম করছেন মিঠাই! পোস্ট করলেন রোমান্টিক ভিডিও

তবে স্যোশাল মিডিয়া বহু মানুষকে তাদের প্রতিভা সকলের সামনে তুলে ধরতে সাহায্য করে থাকে। এখানে না আছে কোনো বয়সের সীমাবদ্ধতা, আর না আছে কোনো নিয়মের কড়াকড়ি। তাই যেকোনো স্হান থেকে যেকোনো বয়সের যে কেউ এই স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে জনপ্রিয় হতে পারেন। অনেক সময় অনেক সহৃদয় ব্যক্তির সহায়তায় বহু সুপ্ত প্রতিভা বিকাশলাভ করে। যেমন করে একদিন রানাঘাটের রানু মন্ডল জনপ্রিয় হয়েছিলেন অতিন্দ্র রায়ের সহায়তায়। তেমন করেই বহু প্রতিভাই বিকাশ লাভ করে স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে।

আরও খবরঃ- ‘বাঁশি শুনে আর কাজ নাই’, দুর্দান্ত কন্ঠে অসাধারণ গানে ‘সারেগামাপা’র মঞ্চ মাতিয়েছিল ছোট্ট অরুনিতা, দেখুন ভিডিও

সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে একজন প্রতিভাধর বৃদ্ধ ব্যক্তির একটি ভিডিও। এক বৃদ্ধ দরিদ্র ব্যক্তি পাতা দিয়ে বাঁশি বাজিয়ে মনোরঞ্জন করছেন সকলের। পোশাক দেখেই তাঁর দারিদ্র্যতার বিষয়টি বোঝা যাচ্ছে। একটি মন্দিরের সামনে পাতা দিয়ে বাঁশি তৈরী করে তিনি ‘মা তোর কত রঙ্গ দেখব বল’ গানটির সুর করছেন। এই সুর ছুঁয়ে গেছে সকলের মন।

আরও খবরঃ- ১০ টাকার পুরনো নোট আছে? থাকলে পেতে পারেন ২৫০০০ টাকা, দেখুন বিস্তারিত

এই বিরল প্রতিভাবান মানুষটির ভিডিও স্যোশাল মিডিয়াতে হু হু করে শেয়ার হয়েছে। তাঁর এই প্রতিভাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন সবাই। হয়তো তাঁর ইচ্ছা ছিল বাঁশি বাদক হওয়ার। কিন্তু ওই “ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, পূর্ণিমার চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি।” তাই হয়তো দারিদ্র্যতার চাপে শখ চাপা পরে গেছে। কিন্তু স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে তিনি পেয়েছেন জনপ্রিয়তা, প্রশংসা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button