‘মাইয়া মাইয়া’ গানে অসাধারণ ভঙ্গিমায় দুর্দান্ত নাচ হাওড়ার যুবতীর, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

কলকাতা হান্ট ডেস্কঃ সৃজনশীলতা আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। এই সৃজনশীলতা আমাদের নতুন করে বাঁচতে শেখায়, জীবনকে নতুন ভাবে দেখতে শেখায়। সৃজনশীল মানুষের জীবনযাপন অন্য রকম হয়। তারা জীবনে এক অন্যরকম স্বাদ আস্বাদন করতে পারেন। যারা সৃজনশীল মানুষ তাদের জীবনযাপন এবং আর বাকি পাঁচজনের জীবনযাপনের মধ্যে পার্থক্য থেকেই থাকে। সৃজনশীল আমাদের মধ্যে জাগরিত করে রুচিবোধ। শিল্প হলো এই সৃজনশীলতার একটি বিশেষ ধারা। কেউ যদি কোনো বিশেষ শিল্পের ওপর আকর্ষিত হয়ে থাকে, কিন্তু সুযোগের অভাবে সেই শিল্পের বিকাশ সাধন না ঘটাতে পারে তাহলেও কোনো না কোনো একদিন সেই শিল্পের বিকাশ অবশ্যই ঘটবে।

আরও খবরঃ- সদ্যই মা হয়েছেন, একরত্তি ছেলেকে বাড়িতে ফেলে যশের সঙ্গে পার্টিতে মত্ত অভিনেত্রী নুসরত

এখন সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে স্ব স্ব গুনের বিকাশ ঘটিয়ে জনপ্রিয় হওয়া অনেক সহজ ব্যাপার। এই স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহার করে আমরা প্রত্যেকেই জনপ্রিয় হয়ে উঠতে চাই। আর এমনভাবে বহু প্রতিভা বিকাশলাভ করছেও। তাই তো ট্যালেন্টেড মুখগুলো মুখগুলো আরোও বেশি করে বিকাশ লাভ করছে আমাদের সামনে। প্রতিদিনই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কোনো-না-কোনো যুবক-যুবতী তাদের নিজস্ব গুনাবলী দ্বারা। আর এর পিছনে রয়েছে স্যোশাল মিডিয়ার অবদান। অতএব আমরা এটা ধরে নিতে পারি যে সোশ্যাল মিডিয়া মিশ্রিত একটি মাধ্যম যেখানে হাসি-কান্না রাগ অভিমান সমস্ত রকম পরিবেশ পাওয়া যায় এক ছাদের তলায়।

আরও খবরঃ- খোলা চুল, হাতে গিটার অনুষ্ঠানের মঞ্চে গান গাইছে কম বয়সী অরিজিৎ, রইলো ভিডিও

এই সোশ্যাল মিডিয়ার ধরুন আমরা যেমন পেয়েছিলাম রানাঘাটের রানু মন্ডলকে, ঠিক তেমনই পেয়েছিলাম আদিবাসী সম্প্রদায় চাঁদমনিকে। আপনারা নিশ্চয়ই ইতিমধ্যে এই ব্যাপারে অবগত যে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যম বানিয়ে বর্তমানে কমবেশি অনেকেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।আর যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে খুব তাড়াতাড়ি জনপ্রিয়তা পাওয়া যায় বা ভাইরাল হওয়া যায় তাই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভাইরাল হতে চায় প্রত্যকেই। আর সেই মতো চেষ্টা করেন সবাই।

আরও খবরঃ- এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংকের মাধ্যমে ফ্রি ট্রেনিং, প্রতিমাসে স্টাইপেন্ড পাবেন

সম্প্রতি স্যোশাল মিডিয়ায় “মাইয়া মাইয়া” গানে নাচ করে ভাইরাল হলেন বাংলার সুচিস্মিতা সরকার। সুচিস্মিতার নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে। সেখানে প্রতিনিয়ত নাচের ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। এর আগেও অনেকগুলো নৃত্য পরিবেশনের ভিডিও দেখা গেছে এই চ্যানেলে। ‘পানি পানি”,”পাতলি কামারিয়া”, ”লে গায়ী” গানে নৃত্য পরিবেশন করে সেই ভিডিও তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করেছিলেন সুচিস্মিতা। আবার ডাস কোরিওগ্রাফার হিসেবেও তিনি বহু মানুষের প্রসংশা ও আশীর্বাদ পেয়েছিলেন এর আগেও। সুচিস্মিতার সবথেকে জনপ্রিয় ডান্স কোরিওগ্রাফি ছিল “মিমি” সিনেমার “পরম সুন্দরী” গানের ডান্স কোরিওগ্রাফিটি। সেই নাচে ভিউয়ার হয়েছিল প্রায় কয়েক লক্ষ। এবারে “মাইয়া মাইয়া” গান করে তিনি দর্শকদের কাছে প্রিয় হয়ে উঠলেন। মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই এই নাচের ভিডিওটিতে ভিউয়ার হয়েছে পাঁচ হাজারের বেশি।

আরও খবরঃ- আজকের সোনা-রুপো, পেট্রোল-ডিজেল ও গ্যাসের বাজারদর কত চলছে জেনে নিন

সুচিস্মিতা হাওড়ার মেয়ে। তাঁর যাবতীয় পড়াশুনা কলকাতায়। ছোটবেলা থেকেই নাচের প্রতি টান ছিল তাঁর। আর ভালোবেসে নাচ করতেন বরাবর। সেই ভালোবাসায় নাচ শিখেছেন প্রোথিতযশা শিল্পীদের কাছে। তাই দক্ষ হয়ে উঠেছেন সহজেই। মাত্র তিন দিন আগে নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে সুনিধি চৌহানের গাওয়া “মাইয়া মাইয়া” গানে নাচ করে সাড়া ফেলে দিয়েছেন সুচিস্মিতা। তাঁর পরনে ছিল কালো পাতিয়ালা আর ব্লাউজ। ব্লাউজটি বেশ চকচকেই ছিল। নিজের বাড়ির ছাদে এই নাচের ভিডিও শুট করেছেন সুচিস্মিতা। ভিডিওটি দর্শকদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন

Back to top button