ভোট মুখী বাংলায় আজ কেমন থাকবে আকাশ? কি জানাচ্ছে আবহাওয়া দপ্তর!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই ক্রমাগত বাংলার তাপমাত্রা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি ঘটছে। উত্তরবঙ্গে গত কয়েক দিন সামান্য বৃষ্টি প্রত্যক্ষ করা গেলেও দক্ষিণবঙ্গের ক্ষেত্রে সেটুকুও দেখা যায়নি।ফলস্বরূপ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলাতে অত্যধিক শুষ্ক আবহাওয়ার সৃষ্টি হয়েছে। শুষ্ক পরিবেশের পাশাপাশি গরমের পরিমাণ অত্যধিক হারে বেড়ে গিয়েছে। যার ফলে মার্চ মাসের শেষের দিক থেকেই অস্বস্তিকর গরমে নাজেহাল হয়ে পড়েছে রাজ্যবাসী। কিছু কিছু জায়গায় সামান্য মেঘলা আকাশ দেখা গেলেও একফোঁটা বৃষ্টির দেখা মিলছে না। এরই মধ্যে আবার এপ্রিল মাসের শুরুর দিকে ঘূর্ণিঝড়ের আগমনের কথা জানিয়েছে হাওয়া অফিস। ফলস্বরূপ বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বাংলার জনগণ। প্রসঙ্গত জানা গিয়েছে আগামী ২৯ শে মার্চ বঙ্গোপসাগর উপকূলে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ক্রমশ ঘনীভূত হয়ে পরিপূর্ণতা লাভ করতে চলেছে ১ লা এপ্রিল। এর পরপরই তা আছড়ে পড়বে বাংলার স্থলভাগে। ঘূর্ণিঝড়টির নাম দেওয়া হয়েছে ‘টাইকুটে’।

আরও পড়ুনঃ বিকিনি পরা ছবি পোস্ট করে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করলেন আয়ুষ্মান পত্নী তাহিরা কাশ্যপ!

এই ঝড়ের ফলে হাওয়ার গতিবেগ প্রায় ৬৫-১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। পাশাপাশি এই ঝড়ের প্রভাবে অনেকটাই প্রভাবিত হবে বিভিন্ন জায়গার তাপমাত্রা। আজ রাজধানী কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস,যা স্বাভাবিকের থেকে প্রায় ২ ডিগ্রি বেশি। অপরদিকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৫.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।উল্লেখ্য বিগত কয়েক দিনের তুলনায় আজ অনেকটাই বেড়েছে সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদ। কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায় এই সর্বোচ্চ তাপমাত্রার পারদ পৌঁছে গিয়েছে প্রায় ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপর।

আরও পড়ুনঃ আমরা এতদিন মমতার ফ্যাক্টরিতে ছিলাম’, বিস্ফোরক মন্তব্য শিশির অধিকারীর!

আগামী কয়েকদিন এই তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে বলে জানা গিয়েছে। আজ উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের কোন জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই।বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ স্বাভাবিক থাকবে।বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোদের তীব্রতার ফলে গরমে আরো অস্বস্তি বৃদ্ধি পেতে পারে।এই মুহূর্তে ঋতু পরিবর্তনের সময় শারিরীক ব্যাপারে আরো সতর্কবার্তা অবলম্বন করার কথা জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।