সংসারের হারানো সুখ সমৃদ্ধি ফিরে আসে সূর্য প্রনাম করলে,জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে

সংসারের হারানো সুখ সমৃদ্ধি ফিরে আসে সূর্য প্রনাম করলে,জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে
ছবিঃ গুগল

সংসারের হারানো সুখ সমৃদ্ধি ফিরে আসে সূর্য প্রনাম করলে। হিন্দুশাস্ত্র মতে তিনি একমাত্র দেবতা যাকে প্রতিদিনই আমরা দর্শন করি। শাস্ত্রে কথিত আছে যিনি প্রত্যহ সূর্য প্রণাম করেন তার কোন ক্ষতি হয় না। সূর্যদেবের আশীর্বাদ তার মাথার ওপর সর্বদা বিরাজ করে।

কমবেশি প্রায় সব মানুষেরই অভ্যাস আছে স্নানের পর সূর্যদেবকে প্রণাম করার। সূর্যদেব সৃষ্টির সবথেকে প্রথম দেবতা এবং সূর্যকে শিব ও বিষ্ণুর বলেও মনে করেন শৈব বৈষ্ণবরা। সূর্যদেব আমাদের জীবনে সুখ শান্তি ফিরিয়ে আনে এবং যে প্রতিদিন সূর্যদেবকে প্রণাম করেন তার জীবনে এক আলাদা অনুভূতি থাকে প্রতিদিনের কাজকর্মের মধ্য এক আলাদাই সতস্ফুর্তি পান।

জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে আমরা যেসব সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি,  সে যে পরিস্থিতিই হোক না কেন সূর্যদেবের কৃপা সাথে থাকলে তা থেকে সহজে মুক্তি পাওয়া যায়। সূর্যদেবকে সন্তান রুপে আশা করেছিলেন কস্যপের স্ত্রী অদিতি এবং অদিতির বাসনায় সন্তুষ্ট হয়ে তার সন্তান রূপে জন্ম করেছিলেন সূর্যদেব।

কথিত আছে যে আউন্ডের রাজা হলেন প্রথম সূর্য নমস্কার প্রবর্তনকারী। তিনি বলেছিলেন যে এই ধারাবাহিকতা নিয়মিতভাবে বজায় রাখতে হবে। আজকাল, ভারতের অনেক স্কুলেও অনুশীলন করানো সুর্য নকস্কারের এবং তাদের সমস্ত ছাত্রদের যোগব্যায়াম শিক্ষা দেয় এবং এটি অনুশীলন করানো হয় সুন্দর এবং কাব্যিক সংগ্রহের মাধ্যমে।